Author: Homeopathic BD

অর্গানন অব মেডিসিন: সূত্র-১৭২ থেকে ২৪৪ পর্যন্ত।

ডি.এইচ.এম.এস (ডিপ্লোমা) কোর্সঃ ৩য় বর্ষের সিলেবাসঃ ১ম পর্ব। (২৫) এক দৈশিক চিররোগ সমূহ (সূত্র-১৭২-১৭৩) #সূত্রঃ ১৭২। রোগ লক্ষণের অত্যন্ত স্বল্পতা হেতু আরোগ্যের পথে অনুরূপ অসুবিধা ঘটিয়া থাকে। ইহা এমন একটি অন্তরায় যাহা আমাদের বিশেষ মনোযোগের বিষয় । কারণ ইহা দূরীভূত হইলে সম্ভাব্য চিকিৎসাপদ্ধতি সমূহের মধ্যে সর্বাপেক্ষা পূর্ণাঙ্গ এই চিকিৎসা প্রণালী ( যেখানে ইহার যন্ত্র স্বরূপ

হোমিওপ্যাথিক ঔষধের মাত্রা ও শক্তি নির্বাচন

মহাত্মা হ্যানিম্যান বলিয়াছেন হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসায় সাফল্যের জন্য নির্ভুল ঔষধ নির্বাচনই যথেষ্ট নহে, পরন্তু কিরুপ ক্ষেত্রে কত শক্তির কি পরিমান বা মাত্রা প্রয়োগ করা উচিত সে সম্পর্কে জ্ঞান থাকা উচিত। আমরা সকোলেই জানি হোমিওপ্যাথিতে রোগ বলিতে কোন স্হুল বস্তু বুঝায় না এবং তাহা আমাদের সুস্হ্য দেহকেও আক্রমণ করে না। সোরা যাহাকে আমি যৌন চেতনার বিকৃত পরিণতি

হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা গ্রহণকালীন করনীয় ও বর্জনীয়

হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা গ্রহণকালীন যা আপনার করনীয়: ১. ঔষধ সেবনের আগে ও সেবনের পরে আধা ঘন্টার মধ্যে কিছু খাবেন না। ২. আপনার সহ্য হয় এমন পুষ্টিকর ও সহজপাচ্য খাদ্য খাবেন। ৩. প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময় আহার করবেন ও নিদ্রায় যাবেন। ৪. দৈনিক কমপক্ষে ৬ ঘন্টা ঘুমাবেন। ৫. দৈনিক প্রচুর শীতল পানি পান করবেন (৪ থেকে ৫ লিটার)।

বিশ্বব্যাপি সরকার স্বীকৃত ও বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত একাডেমিক হোমিওপ্যাথি কোর্স এবং সনদপত্র

ডা. মো. আব্দুস সালাম (শিপলু) : দেশে বা বিদেশে চিকিৎসা শিক্ষায় যে কোন একাডেমিক কোর্সের ডিগ্রি ও সার্টিফিকেট অনুমোদন এবং আইনগত গ্রহণযোগ্যতা/বৈধতা নিতে দরকার হয় নিজ নিজ দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় (স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগ), স্বাস্থ্য অধিদপ্তর/স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তর, শিক্ষা মন্ত্রণালয় (মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ/কারিগরি শিক্ষা বিভাগ/বিশ্ববিদ্যালয় শাখা) এবং বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) অনুমোদন সহ স্বীকৃতি প্রজ্ঞাপন/পরিপত্র।

হোমিওপ্যাথিক ঔষধের নিজস্বকথাঃ ৪র্থ পর্যায়

১. Abrotanum (অ্যাব্রোটেনাম): (১) পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন রোগ বা রোগের রূপান্তর। (২) উদরাময়ে উপশম। (৩) ক্ষয়দোষ বা প্রবল ক্ষুধা সত্ত্বেও দেহ শুকাইয়া যায়। (৪) বাচালতা। ২. Acid Acetic (এসিড অ্যাসেটিক): (১) প্রচুর প্রস্রাব,প্রবল পিপাসা ও অরুচি। (২) দারুণ দূর্বলতা ও শ্বাসকষ্ট। (৩) জ্বরে পিপাসা নাই কিন্তু অন্য রোগের সাথে প্রবল পিপাসা। ৩. Acid Picric (এসিড পিকরিক):

হোমিওপ্যাথি বিরোধি সমালোচনা কেন?

[লেখক : ডা. মো. আব্দুস সালাম (শিপলু), বাংলাদেশ] ========================================= হোমিওপ্যাথি বিরোধি লেখক ও সমালোচকদের প্রতিঃ ==================================== কিছু কিছু অ্যালোপ্যাথি ডাক্তার হোমিওপ্যাথি সমন্ধে বিরুপ মন্তব্য করে ফেসবুকে কলাম লিখছে..। সে সমস্ত লেখক ইন্টারনেট হতে হোমিওপ্যাথি বিরোধি লেখকদের কলাম সংগ্রহ করে তার সঙ্গে নিজের মত কথা লিখে প্রকাশ করে। ফলে চিকিৎসা বিজ্ঞানকে হেও প্রতিপন্ন করে আসছে। যা

হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা বিজ্ঞান ও ঔষধ এবং চিকিৎসা জানুন

ডা. মো. আব্দুস সালাম (শিপলু) ======================= প্রারম্ভিক : বহুভাষাবিদ, রসায়নবিদ (রসায়নশাস্ত্রের চূড়ামণি), তৎকালীন চিকিৎসা পদ্ধতি (Western Medicine নামে অভিহিত) এর উপর (১৭৭৯ খ্রি.) এনলার্জেন বিশ্ববিদ্যালয়, জার্মান হতে সর্বোচ্চ ডিগ্রি ডক্টর অব মেডিসিন (এম.ডি) ডিগ্রিধারী, ডা. স্যামুয়েল হ্যানিম্যানের ১ম প্রকাশিত কালজয়ী গ্রন্থ Organon der rationellen Heilkunde নামে গ্রন্থে Western Medicine পদ্ধতিকে “অ্যালোপ্যাথি” নামে (১৮১০ খ্রি.) নামকরণকারী

পরিবর্তনশীল জলবায়ু ও খাদ্যভ্যাস: হোমিওপ্যাথি গবেষণা

ডা. মো. আব্দুস সালাম (শিপলু) প্রারম্ভিক : বিশ্বব্যাপি জলবায়ু ও আবহাওয়া পরিবর্তনশীল এবং বসবাসরত জনগোষ্ঠীর খাদ্যাভ্যাস বিভিন্ন মহাদেশে ভিন্ন ভিন্ন রকম। তার সঙ্গে ভিন্ন ভিন্ন অঞ্চলের জনগোষ্ঠীর জীবিকা ও পেশা জড়িত। এগুলো বিবেচনা না করে ইউরোপিয় মহাদেশে জলবায়ু, আবহাওয়া, জনগোষ্ঠীর খাদ্যাভ্যাস, পেশা-জীবিকা উপর ভিত্তি করে স্যার ডা. স্যামুয়েল হ্যানিম্যানের সময় প্রুভিংকৃত ঔষধ বর্তমান বিশ্বের সকল

বাংলাদেশে হোমিওপ্যাথি শিক্ষার্থীরা রাজপথে সোচ্চার হলে, হোমিওপ্যাথি উন্নয়ন হবে

ডা. মো. আব্দুস সালাম (শিপলু) : ভারতে হোমিওপ্যাথি উন্নয়ন এমনিতেই হয়নি! ভারতের হোমিওপ্যাথি উন্নয়নের পিছনে কারণ গুলো জেনে নিন। তা বাংলাদেশ সহ বিশ্বে অনেক দেশের হোমিওপ্যাথি দাবি-অধিকার আদায় ও বাস্তবায়ন এবং উন্নয়নে দৃষ্টান্ত হতে পারে। ১৯৭২খ্রি. হতে বাংলাদেশে সরকারিভাবে আন্তজার্তিক পর্যায়ের ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) কোর্স চালু হয়। চারদশক যাবত বাংলাদেশের ডিএইচএমএস (হোমিওপ্যাথি) কৃতরা শোষণ ও বঞ্চনার

মানসিক রোগের চিকিৎসায় হোমিওপ্যাথিক ঔষধের নির্দেশিকা

Common homeopathic Psychiatric medicines- আমরা শারীরিক বা মানসিকভাবে অসুস্থ হলে কোন চিকিৎসা পদ্ধতি অবলম্বন করে চিকিৎসা করলে সবচেয়ে দ্রুত, আরামের সাথে আর কম খরচে সম্পূর্ণরূপে স্থায়ীভাবে রোগমুক্ত হতে পারব, তা ঠিক করতে প্রায়ই ভুল করে থাকি। সোজা কথায় শারীরিক বা মানসিক যে-কোন ধরণের রোগেই আমরা আক্রান্ত হই না কেন, প্রথমেই আমাদের হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা অবলম্বন করা