Cuprum Met (কুপ্রাম মেট): গুরুত্বপূর্ণ রুব্রিকসহ

১২১.১। Cuprum Met (কুপ্রাম মেটালিকাম)।
DHMS (4th year).
♣ সমনামঃ কপার বা তামা, কুপ্রাম, মেটালিক কপার ।
♣ মায়াজমঃ সোরিক, সাইকোটিক, সিফিলিটিক, টিউবারকুলার।
♣ সাইডঃ বাম পাশ।
♣ কাতরতাঃ শীতকাতর।
♣ উপযোগিতাঃ সুন্দর চুলওয়ালা লোকদের জন্য প্রযোজ্য এবং যাদের ধাতু গঠন কার্বো-নাইট্রোজেন। সে সব স্ত্রীলোকদের অনেক সন্তান হয়েছে (প্রসবান্তিক ব্যথা)। এ ওষুধ বলের মতো ও ক্ষণিক খিঁচুনি টঙ্কার এবং মৃগী রোগের আক্রমণে উপযোগী।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ স্নায়ু, পরিপাকতন্ত্র, লিভার, কিডনি, সেরিব্রো স্পাইন্যাল সিস্টেম, নিউমোগ্যাস্টিক নার্ভ, সঞ্চালনকারী, মাংসপেশি, রক্ত, উদর।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ এর ক্রিয়া মানবশরীরের স্নায়ুকেন্দ্রের ওপরই অধিকতর লক্ষিত হয়ে থাকে। আক্ষেপ লক্ষণ আনয়ন করাই এর প্রধান কাজ। একজন্য সাধারণ খেঁচুনি, অপস্মার (Epiledy), হুপিংকাশি, কলেরা ইত্যাদি আক্ষেপজাতীয় রোগে প্রায়ই সূচিত হয়ে থাকে ।
গার্নেস বলেন যে, “জিহ্বায় একটি পিচ্ছিল ধাতব স্বাদ ” হলো কুপ্রামের একটি বিশেষ লক্ষণ। রাস. এমন আর একটি ওষুধ যার এ ধরনের একটি উল্লেখযোগ্য লক্ষণ রয়েছে। “খিলধরা অথবা আক্ষেপ হাতে ও পায়ে শুরু হয়, পেট পর্যন্ত বিস্তৃত হয় ” এ লক্ষণ সম্পর্কে নিশ্চিত হয়েছিলেন জে. সি. ম্যাকলারেন ।
♣ সারসংক্ষেপঃ কার্বো-নাইট্রোজেন ধাতু বিশিষ্ট সুন্দর চুলওয়ালা লোক। “জিহ্বায় একটি পিচ্ছিল ধাতব স্বাদ ” আক্ষেপ নিম্নাঙ্গে সূত্রপাত। শীতার্ততা ও পরিবর্তনশীলতা । মানসিক পরিশ্রমে, ঠাণ্ডা বাতাসে, স্পর্শে, বমিতে ও রজঃস্রাবের আগে বাড়ে। একপাশে চেপে শুলে, শীতল পানীয়ে, ঘাম হলে, চুম্বক শক্তিতে ও ভেদ নির্গমনে উপশম। অস্হির, কলহপ্রিয়, বাতিক, পাগলামি, স্মৃতিশক্তির দুর্বলতা, ধ্বংস প্রবৃত্তি, প্রলাপ, ভ্রান্ত বিশ্বাস। বাধাপ্রাপ্ত উদ্ভেদ বা অবরুদ্ধ স্রাব হেতু মানসিক স্তম্ভিত ভাব বা হতবিহ্বলকর অবস্হা। নির্দিষ্ট সময়ে রোগাক্রমণ হয়ে আধা ঘণ্টা হতে ৪ ঘণ্টা স্হায়ী হয়।
♣ অনুভূতিঃ (১) যেনো মাথার মাঝে শূন্য। ব্যথা যেনো মস্তিষ্কের থেঁতলানো আঘাত থেকে এবং চোখের কুটরে, চোখ ঘোরানো ফলে। (২) রোগাক্রণের অনুভূতি ।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ (১) খেঁচুনি বা আক্ষেপের আগে কুকুরের মতো চিৎকার করে, গো গো শব্দ করে। (২) উন্মাদনার ক্ষেত্রে মূত্রনালিতে অনুভূতি শূন্যতার সাথে অসাড় মূত্রক্রিয়া হয়ে । (৩) নির্দিষ্ট সময়ে রোগাক্রমণ হয়ে আধা ঘণ্টা হতে ৪ ঘণ্টা স্হায়ী হয়।
< বৃদ্ধিঃ পূর্বাহ্নে, রাতে, মধ্য রাতের আগে ও পরে, দেহের কোনো অংশে ঠাণ্ডা লাগালে, পদদ্বয়ে ঠাণ্ডা লাগালে, খাদ্য: সীম বা মটরে, বাঁধা কপিতে, খাদ্য: বায়ু উৎপন্ন করে এরূপ খাদ্যে, ভারি খাদ্যে, মাংসে বাড়ে, দুধে, কাঁচা সবজিতে, গরম খাদ্যে, চিৎ হয়ে শুলে, ঘর্ষণে, দৌড়ালে, স্পর্শে, বমিতে । অমাবস্যায়, ঠাণ্ডা বাতাসে, রাতে, পায়ের ঘাম অবরুদ্ধে, বমির পর, উদ্ভেদ বসে গেলে, রজঃস্রাবের আগে, মানসিক পরিশ্রমে, বসতে ।
> হ্রাসঃ একপাশে চেপে শুলে, ঘামে, খাদ্য: শীতল পানীয়ে, ঠাণ্ডা পানি গিললে, শক্ত করে বাঁধলে, স্হির হয়ে থাকলে, ঘাম হলে, চুম্বক শক্তিতে, ভেদ নির্গমনে।
♣ কারণঃ ভয় পাওয়া, আতঙ্ক, উদ্ভেদ বসে যাওয়া।
♣ শত্রুভাবাপন্নঃ অরাম, কুক্কাস, ডালকা, মার্ক-স, ওপি।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ অরাম-মেট, বেল, চায়না, ককো, ইপি, মার্ক-স, ক্যাম্ফ, হিপার, কোনি, পালস, সালফ, ক্যামো, নাক্স-ভ, ভিরেট্রাম।
= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা কুপ্রাম মেটালিকাম প্রয়োগ করতে পারবো।
গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রুব্রিকঃ
১.১) প্রলাপ: অদ্ভূদ অঙ্গভঙ্গি করে, খেলা করে- A= হায়োস। B= বেল, কুপ্রা, ল্যাক্টো, ওপি, ফস, প্লাম্বা, স্ট্যামো।
১.২) প্রলাপ: অন্ধকারের মাঝে- C= ক্যাল্ক-আর্স, কার্বো-ভে, কুপ্রা, স্ট্যামো।
১.৩) প্রলাপ: কোনো বিশেষ বস্তুর প্রতি একদৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকে- B= ইগ্নে। C=আর্টিমি, বোভি, ক্যাম্ফ, ক্যান্থা, কুপ্রা, স্ট্যামো, র্যানান-বা।
২.১) ভ্রান্ত বিশ্বাস: পুলিশ- B=কুপ্রা, হায়োস, ক্যালি-ব্রো। C= মেলিলো, ফস, প্লাম্বা, জিঙ্ক।
২.২ ) ভ্রান্ত বিশ্বাস: ভাবে সে একজন উচ্চপদস্হ ব্যক্তি- C= কুপ্রা, ফস, ভিরেট।
২.২) ভ্রান্ত বিশ্বাস : ছায়ামূর্তি, ভূত, প্রেত দেখে- A= বেল। B= ক্যাম্ফ, কুপ্রা, হায়োস, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-কা, স্ট্র্যামো, সালফ।
৩) ধ্বংস প্রবৃত্তি (Destructiveness)- B= বেল, ক্যাম্ফ, কুপ্রা, হায়োস, স্ট্র্যামো, ট্যারেন্টু, টিউবার, ভিরেট।
৪) মানসিক অবসাদ (Prostration of mind)/মানসিক শ্রম, সহ্য করতে পারে না (Mental effort, inability to sustain)- A- আর্জ-মে, অরাম, কোনি, কুপ্রা, ফেরা-পিক্রি, ক্যালি-ফস, ল্যাকে, লাইকো, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-ফস, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ফস-এসিড, ফস, পিক্রি-অ্যাসি, সিপি, সাইলি, সালফ।
৫) অস্হিরতা, স্নায়বিকতা (Restlessness, nervousness)/অস্হির (Fidgety) – অ্যাকোন, অ্যানাকা,আর্জ-নাই,আর্স,আর্স-আই,ব্যাপটি,বেল,ক্যাল্ক,ক্যাল্ক -ফস,ক্যাম্ফ,সিমিসি,সাইকু, কলো, কুপ্রা, কুপ্রা-আর্স,ফেরাম, ফেরা-আর্স, হায়োস, লাইকো, মার্ক, প্লাম্বা, পালস, রাস, সিকেলি,সিফি, সাইলি,স্ট্যাফি, স্ট্র্যামো, সালফ,ট্যারেন্টু,জিঙ্ক ।
৬) অস্হিরতা : বিছানায় এপাশ ওপাশ করে- A= আর্স, কুপ্রা, ফেরাম, রাস, ট্যারেন্টু।
৭.১) উচ্চ চিৎকার করে (Shrieking)/চিৎকার (Exclamation)- A= অ্যাপিস, ক্যাম্ফ, সাইকু, কুপ্রা, ক্যালি-কা, লাইকো, প্লাটি, স্ট্র্যামো, ভিরেট
৭.২) উচ্চ চিৎকার করে : আক্ষেপের আগে- A= সাইকু, কুপ্রা।
৮) কাঁদেঃ ঘামের সময়- A= বেল, কুপ্রা, লাইকো, ওপি। B= ক্যাল্ক, ক্যাম্ফ, ক্যামো, পেট্রো, পালস, স্পঞ্জি, স্ট্র্যামো।
৯) বাহ্য অঙ্গের কৃষ্ণবর্ণতা (Blackness)- A= আর্স, কুপ্রা, মার্ক, ওপি, সিকেলি, ভিরেট।
১০.১) আক্ষেপ/ খিচুঁনি (Convulsions)- A= আর্স, আর্টি-ভাল, অ্যাট্রো, বেল, বিউফো, কস্টি, ক্যামো, সাইকু, সিনা,কুপ্রা, হায়োস, লোবে, নাক্স-ম, নাক্স-ভ, ওপি, প্লাটি, স্ট্র্যামো, স্ট্রিকনি।
১০.২) আক্ষেপ : ক্ষণিক- A= অ্যাগারি, বেল, বিউফো, ক্যান্থা, ক্যামো, সাইকু, কুপ্রা, হায়োস, লাইসি, ওপি, প্লাম্বা, সিপি, স্ট্র্যামো।
১০.৩) আক্ষেপ : মৃগীরোগ সংক্রান্ত- A= আর্জ-মে, আর্জ-নাই, ব্যারা-কা, বিউফো, ক্যাল্ক-আর্স, কস্টি, কুপ্রা, হায়োস, ওনান, প্লাম্বা, সাইলি, সালফ, ভিস্কা।
১০.৪) আক্ষেপ : মৃগীরোগ সদৃশ- উদ্বেগ প্রকাশিত না হওয়ার ফলে- A= কুপ্রা। B= অ্যান্টি-ক্রু।
১০.৫) আক্ষেপ : মৃগীরোগ সদৃশ- পড়ে যাওয়াসহ- A= বেল, ক্যামো, কুপ্রা, হায়োস, ওন্যান।
১০.৬) আক্ষেপ : ক্রোধ মিশ্রিত বিরক্তির ফলে- A= কুপ্রা। B= ক্যাম্ফ, ইগ্নে, ইপি।
১১) নীলকৃষ্ণ রোগ (Cyanosis)- A= ক্যাম্ফ, কার্বো-ভে, কুপ্রা, ডিজি, ল্যাকে, লরো,ওপি, ভিরেট।
১২) আলস্য (Lissitude) : A= অ্যালু, অ্যামন-কা, অ্যাপিস, অ্যারেনি, ক্যালাডি, ক্যাল্ক, কার্বো-সাল, কোনি, ক্রোটেল -ক্যাস্ক, কুপ্রা, ফেরাম, জেলস, গ্র্যাফ, ল্যাকে, ফস-অ্যাসি, পিক্রি-অ্যাসি, রুটা, স্যাঙ্গুই, সাইলি, সাল-অ্যাসি, ট্যারেন্টু।
১৩) চুম্বক শক্তিতে উপশম (Magnetism amel) – A= কুপ্রা, ফস।
১৪) ঋতুস্রাবের আগে (Menses, before) – A= বোভি, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, কুপ্রা, ল্যাকে, লাইকো, ন্যাট্র-মি, পালস, সিপি, সালফ, ভিরেট, জিঙ্ক।
১৫) ব্যথা : চাপ দেয়ার মতো বাথা অভ্যন্তরীণভাবে- আর্জ-নাই, আর্নি, আর্স, অ্যাসাফ, বেল, ব্রোমি, ক্যাল্ক, চায়না, ক্যান্থা, কার্বো-ভে, কলো, কুপ্রা, হ্যামামে, ল্যাকে, লিলি-টি, লাইকো, নাক্স-ভ, পেট্রো, ফস, পালস, রাস, রুটা, স্যাঙ্গুই, স্যাঙ্গু-নাই, সিকেলি, সেনেগা, সিপি, সাইলি, স্পাইজে, স্পঞ্জি, স্ট্যানা, সালফ, ভ্যালের, ভিরেট।
১৬.১) নাড়ির গতি অস্বাভাবিক (Pulse abnormal) – A= অ্যাকোন, আর্স, আর্স-আই, বেল, কুপ্রা, ডিজি, হায়োস, আই, ক্রিয়ো, ল্যাকে, ওপি, ফস-এসিড, ফস, প্লাটি, প্লাম্বা, রাস, সাইলি, স্ট্র্যামো, স্ট্রনসি, ভিরেট।
১৬.২) নাড়ীর গতি অস্বাভাবিক : অনুভব করা যায়না এমন (Imperceptible)- A= অ্যাকোন, কার্বো-ভে, কলচি, কুপ্রা, সাইলি, ভিরেট।
১৬.৩) নাড়ির গতি অস্বাভাবিক: কোমল গতি (soft)-A= অ্যান্টি-টা, কার্বো-ভে, কুপ্রা, ডিজি, ল্যাকে, মিউ-অ্যাসি, ওপি, স্ট্র্যামো, টেরিবি, ভিরেট ।
১৭) সাধারণ ফোলাঃ স্ফীত বা ফোলা (puffy) – A= অ্যান্টি-ক্রু, অ্যাপিস, আর্স, ক্যাল্ক, ক্যাপসি, কুপ্রা, ডিজি, ফেরাম, গ্রাফ, হেলি, ওলিয়ে, স্কুই।
১৮) স্পর্শে প্রকোপ বাড়ে (Touch agg) – A= অ্যাগারি, অ্যাপিস, আর্জ-নাই, অ্যাসাফ, বেল, ক্যামো, ককুল, কফি, কলচি, ক্রোট-কা, কুপা, হিপার, হায়োস, ক্যালি-আর, ক্যালি-কা, লাইকো, নাই-অ্যাসি, রডো, সাইলি, স্ট্যাফি, সালফ।
১৯) বমন, বমিতে প্রকোপ বাড়ে (Vomiting agg.)- A= আর্স, ককুল, কুপ্রা, পালস, সালফ।
২০.১) দুর্বলতা/ক্লান্তিঃ অনিদ্রায়- A= ককুল। B=কুপ্রা।
২০.২) দুর্বলতা/ক্লান্তিঃ মানসিক পরিশ্রমে- A= ক্যাল্ক, কুপ্রা, ইগ্নে, সোরিন, স্যালে।
#ডা.এইচএম আলীমুল হক, ডিএইচএমএস (বিএইচবি), কিউএইচসিবি (বিইউবি)।
চেম্বার: আলহক্ব হোমিও ফার্মেসী, মৌচাক, কান্দাপাড়া, মিজমিজি, সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ।
#চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শের জন্য ১০০টাকা বিকাশ করুন এই নাম্বারে ০১৯২০-৮৬৬৬১০ তারপর সকাল ৯.৩০ থেকে রাত ৯.৩০ পর্যন্ত (শুক্রবার ও নামাজের সময় ছাড়া) কল করুন।