Aurum Met (অরাম মেট):গুরুত্বপূর্ণ রুব্রিকসহ

৬১.১। Aurum Met (অরাম মেট)।
DHMS (4th year).
♣ সমনামঃ গোল্ড, অরাম, মেটালিক গোল্ড, স্বর্ণ।
♣ মায়াজমঃ সোরিক, সাইকোটিক, সিফিলিটিক।
♣ সাইডঃ ডানদিক।
♣ কাতরতাঃ শীতকাতর।
♣ উপযোগিতাঃ প্রত্যয়পূর্ণ ও আশাবাদী লোক যাদের চুল ও চোখ কালো। মোটা রক্তপ্রধান ধাতু বিশিষ্ট ব্যক্তি, যাদের দৃষ্টি ক্ষীণ, জীবনে বিতৃষ্ণা। পারদের অপব্যবহারে সিফিলিসের কুফলে শীর্ণতা ; স্বাস্থ্য যাদের ক্রমশঃ শুকিয়ে যাচ্ছে এরূপ লোকদের ক্ষেতে উপযোগী।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ মন, স্নায়, রক্ত সংবহনতন্ত্র, হৃদপিন্ড, নাক, হাড়, তরুণাস্হি, নাকের হাড়, সন্ধি, গ্রন্থি, যকৃত, কিডনি, চোখের শ্লৈষ্মিক ঝিল্লি।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ অরাম-মেটে ইচ্ছাবৃত্তিটি সর্ব প্রথমে আক্রান্ত হয়ে ক্রমে ক্রমে বুদ্ধিটিকে বিকৃত করে, কি
♣ ফিজিওলজিক্যাল কাজঃ এটি প্রথমে রক্তাধিক্য
উৎপন্ন করে পরে মনের ভাবগুলোকে উত্তেজিত করে। হৃদপিন্ড আক্রান্ত হয় এবং হৃদস্পন্দনের গতি অত্যন্ত বেড়ে যায়। হৃদপিন্ডে বার বার রক্ত জমা হয়ে প্রথমতঃ বিবৃদ্ধি প্রাপ্ত হয়, দ্বিতীয়তঃ তা শক্ত হয়ে কঠিন অবস্হায় পরিণত হয়। ফুসফুসেও প্রচুর রক্তের সমাবেশ হয়।
♣ সারসংক্ষেপঃ প্রত্যয়পূর্ণ ও আশাবাদী, মোটা, রক্তপ্রধান ধাতু বিশিষ্ট ব্যক্তি পারদের অপব্যবহারে, সিফিলিসির কুফলে ক্রমশঃ শীর্ণতা প্রাপ্তি। অতিশয় বুক ধরফড়ানি ও হাড়ের রোগ। হাঁটার সময় হার্ট নড়ে
যেনো ঢিলা হয়ে গেছে। রাতে, প্রাতে, মানসিক পরিশ্রমে ও শীতকালে বাড়ে। সংগীতে, সঞ্চালনে, হাঁটলে ও গ্রীষ্মে উপশম। নৈরাশ্য, জীবনে বিতৃষ্ণা ও আত্মহত্যার প্রবৃত্তি, বিষন্নতা, ক্রোধ, উৎকন্ঠা ও পরিত্যক্ত বোধ। মানসিক ও শারীরিক ব্যস্তবাগীস ভাব। পর্যাবৃত্তি : ২১ দিন অন্তর। জীবনে বিতৃষ্ণার সাথে পর্যায়ক্রমে হাসতে থাকে।
♣ অনুভূতিঃ ১) হাঁটার সময় হার্ট নড়ে
যেনো ঢিলা হয়ে গেছে। অনুভূতি যেনো হৃদযন্ত্র তখনো দন্ডায়মান রয়েছে।
২) হৃদপিন্ডে কোনো বাইরের বস্ত্ত ঝুলে থেকে বুদবুদ করছে এরূপ অনুভূতি হয়।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ
১) গর্ভাবস্থায় আবেগে লাফ দিতে চায় বা লাফ দেয়ার জন্য আবেগপ্রবন হয়ে পড়ে।
২) মৃত্যুভয়ের সাথে মৃত্যু কামনা করে।
৩) জীবনের বিতৃষ্ণার সাথে পর্যায়ক্রমে হাসতে থাকে।
< বৃদ্ধিঃ পূর্বাহ্নে, রাতে, শরৎকালে, সাধারণভাবে ঠান্ডায়, বিছানায় শুলে, সঞ্চালনে, বসাবস্হায়, বসন্তকালে, দাঁড়ালে, অনাচ্ছাদনে, বায়ুতে প্রকোপে, গরমে, উষ্ণতায়, আবেগে, সূর্যাস্ত হতে সূর্যোদয় পর্যন্ত, শীতকালে, প্রাতে, শুয়ে থাকলে উপশম পরে বাড়ে, মানসিক পরিশ্রমে, রাগান্বিত হলে, প্রতিবাদে, ঠান্ডা বাতাসে, সঞ্চিত অসন্তোষে, সিঁড়ি বেয়ে ওপরে ওঠলে, উঁচুস্থানে।
> হ্রাসঃ সন্ধাকালে, খোলা বাতাসে, গোসলে , আক্রান্ত অঙ্গের সঞ্চালনে, চাপে, মুক্ত বাতাসে, বিছানায় শুলে, উনুনের গরমে, উষ্ণ বায়ুতে, ধর্মীয় ভাব, সংগীতে, সঞ্চালনে, নড়াচড়ায়, হাঁটলে, মন্থর গতিতে, বিকেলে, মুক্ত বাতাসে, হাঁটলে, প্রাতঃকালে ও গ্রীষ্ণে, গরমে, ঠান্ডা পানিতে গোসল করলে, জ্যোৎস্না রাতে।
♣ কারণঃ পারদ, অ্যালকোহল, পটাসিয়াম আয়োডাইট। শোক, ক্রোধ, ভয়, দুঃখ, প্রেমে ব্যর্থতা। বিরুদ্ধতা ও দীর্ঘদিনের অশান্তি।
♣ ইচ্ছাঃ দুধ পানের, খোলা বাতাসে।
♣ অনিচ্ছাঃ মাংসে।
♣ অসহ্যঃ ঠান্ডা।
♣ শত্রুভাবাপন্নঃ বেল, হিপার, মার্ক, ক্যালি-আয়োড, স্পাইজে।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ বেল, চায়না, ককুল, কফি, কুপ্রা, মার্ক, পালস, স্পাইজে, সোলানা-নাই, ক্যাম্ফ।
♣ এটি ক্রিয়ানাশকঃ মার্ক, স্পাইজে, অ্যালকোহলের পুরনো কুফল, ক্যালি-আই।
= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা অরাম-মেট প্রয়োগ করতে পারবো।
গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রুব্রিকঃ
১) ক্রোধ (Anger) প্রতিবাদ করলে – A=অরাম, ইগ্নে, সিপি । B=ব্রায়ো, ফেরাম, ফেরা-আর্স, নিক্কো, নাক্স-ভ, সাইলি, থুজা ।
২) প্রতিবাদ (Contradiction) সহ্য করতে পারে না- A=অরাম, ইগ্নে, লাইকো, সিপি ।
৩) মৃত্যু ইচ্ছা করে (Death, Desires) – A=অরাম, ল্যাক-ক্যান ।
৪.১) নৈরাশ্য (Despair) / আশাশূন্য (Hopeless)-A= আর্স, অরাম, ক্যাম্ফ, কফি, হেলি, ইগ্নে, সোরিন ।
৪.২) নৈরাশ্য: ধর্মবিষয়ক (আত্মার মুক্তি প্রভৃতি) সম্বন্ধে -A=আর্স, অরাম, ল্যাকে, লিলি-টা, ভিরেট ।B= আর্জ-নাই, ক্যাল্ক, ক্যাম্ফর, চেলিডো, লাইকো, মেজের, সোরিন, পালস, স্ট্যামো, সালফ, থুজা ।
৫) আরোগ্য সন্দেহপূর্ণ: আত্মার শান্তির উদ্দেশ্যে-A=আর্স, অরাম, ল্যাকে, পালস । B=বেল, ক্যাল্ক, চেলিডো, ক্রোকা, ডিজি, হায়োস, লিলি-টা, লাইকো, নাক্স-ভ, নেলিনি, স্ট্যামো, ভিরেট ।
৬) কল্পনায় ডুবে থাকে (Fancies, absorbed in)-B=অরাম, কুপ্রা, সাইলি, স্ট্যামো ।
৭.১) ভয়, হৃদরোগ ওঠলে-B=অরাম, লাইকো, মিনিয়ে, মার্ক-কর, মেজের ।
৭.২) ভয়, গোলমাল হতে- B= অ্যান্টি-ক্রু, অরাম, বোরা, কস্টি, ককুল, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-সাল ।
৮) পরিত্যাক্ত বোধ করে (Forsaken feeling) -A= অরাম, পালস। B=আর্জ-নাই, সাইক্লে, ল্যাকে, প্ল্যাটি, স্ট্যামো ।
৯.১) বিস্বাদ (Grief) -A= অরাম, কস্টি, ইগ্নে, ন্যাট্র-মি, পালস ।
৯.২) বিস্বাদ :রোগভোগ হতে- A= অরাম, কস্টি, ককুল, ল্যাকে, ন্যাট্র-মি, ফস-অ্যাসি, স্ট্যাফি ।
১০) পরিশ্রমী ( Industrious) কর্মশীলতা ( Activity) : A= অরাম, ট্যারেন্টু। B= ব্যারা-কা, হায়োস, ইগ্নে, ল্যাকে, ওপি, সিপি।
১১) বিলাপ করে, কাতরতা প্রকাশ করে, চিৎকার করে কাঁদে ( Lamenting, bemoaning, wailing etc.)/ দুঃখ করে ( Complining) / আর্তনাদ করে ( Howling) : A= অরাম, লাইকো, ভিরেট, ভিরেট-ভি।
১২.১) হাস্য করে : আক্ষেপিক- A= অরাম, ইগ্নে।
১২.২) হাস্য করে : কথা বলার সময়- A= অরাম, বেল।
১৩) বিতৃষ্ণা : জীবনের প্রতি- A= অ্যান্টি-ক্রু, আর্স, অরাম, চায়না, মার্ক, ন্যাট্র-মি, ফস, থুজা ।
১৪) প্রার্থনাশীল (Praying) -A=অরাম, পালস, ভিরেট। B=আর্স, বেল, স্ট্যামো।
১৫.১) বিষণ্নতা: সন্ধ্যাকালে- A=অরাম, নাই-অ্যাসি, পালস। B=অ্যান্টি-ক্রু, আর্স, ক্যাল্ক, কার্বো-সাল, হিপার, লাইকো, ফস, প্ল্যাটি, রুটা, সিপি, সালফ, ভিরেট।
১৫.২) বিষণ্নতা: পারদের অপব্যবহারের পরে-A=অরাম, অরাম-মি । B=হিপার, নাই-অ্যাসি,। C=স্ট্যাফি ।
১৫.৩) বিষণ্নতা: নিদির্ষ্টকালে – B=আর্স, অরাম, কোনি । C=কোপেই ।
১৬) অত্যানুভূতিযুক্ত : সঙ্গীতে উপশম- অরাম, ট্যারেন্টু ।
১৭.১) আত্মহত্যার প্রবৃত্তি (Suicidal disposition) -A= অরাম, অরাম-মি, ন্যাট্র-সাল।
১৭.২)আত্মহত্যার প্রবৃত্তি :ঐ চিন্তা- A=অরাম, ন্যাট্র-সাল, সোরিন । B=হিপার, ইগ্নে, মার্ক, পালস, রাস।
১৮) প্রাতে (Morning) বাড়ে- A= অ্যাগারি, অ্যামন-মি, আর্জ-মে, আর্স-আই, অরাম, ব্রায়ো, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফ, কার্বো-অ্যানি, কার্বো-সাল, কার্বো-ভে, ক্যামো, চেলিডো, সিনা, ক্রোকা, ক্যালি-বাই, ক্যালি-নাই, ল্যাকে, ন্যাট-আর্স, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ওনোস, পেট্রো, ফস-অ্যাসি, ফস, পালস, রডো, রাস, রোমেক্স, সিপি, স্পাইজে, স্কুই, সালফ, ভ্যালের ।
১৯) খোলা বাতাসে : এতে আকাঙ্ক্ষা – A= অরাম, অরাম-মি ক্যাল্ক-আই, কার্বো-ভে, ক্রোকা, আই, ক্যালি-আই, ক্যালি-সাল, লাইকো, পালস, সালফ।
২০) ঠাণ্ডা বাতাসে বাড়ে- অ্যাগারি, অ্যালি-স্যা, আর্স, অরাম, ব্যারা-কা, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, ক্যাম্ফ, কস্টি, সিমিসি, সিস্টা, ডালকা, হেলি, হিপার, হাইপেরি, ক্যালি-আর্স, ক্যালি-কা,লাইকো, ম্যাগ-ফস, মস্কাস, নাক্স-ভ, নাক্স-ম, সোরিন, র্যানান-বা, রডো, রাস, রিউমেক্স, স্যাবাডি, সিপি, সাইলি, স্ট্রনসি ।
২১) ঠাণ্ডা লাগালে বাড়ে- A=আর্স, অরাম, ব্যারা-কা, ক্যান্থা, ক্যামো, হিপার, ক্যালি-আর্স, ক্যালি-বাই, ক্যালি-কা, লাইকো, মস্কাস, নাক্স-ভ, ফস-অ্যাসি, পাইরো, র্যানান-বা, রাস, স্যাবাডি, সিপি, সাইলি, সাল-অ্যাসি ।
২২) অস্হিবাড়ে (Exostoses) – A=অরাম, অরাম-মি, ক্যাল্ক-ফ্লো, ফস, সাইলি ।
২৩) পারদের অপব্যহার। (Mercury) A=অরাম, কার্বো-ভে, হিপার, ক্যালি-আই, ল্যাকে, ন্যাট্র-সাল, নাই-অ্যাসি, ফাইটো, স্ট্যাফি, সালফ ।
২৪.১) ব্যাথা : হাড়গুলোতে রাতে- A= অরাম, ক্যালি-আই, মার্ক, নাই-অ্যাসি।
২৪.২) ব্যাথা : ছিন্নকর হাতের ব্যাথা – A= অরাম, চায়না, ক্যালি-কা, ল্যাকে, মার্ক, রডো, স্পাইজে।
২৫) সিফিলিসি ( Syphilis) : A= আর্স-আই, অরাম, অরাম-মি, অরাম-মি-নাই, ক্যালি-আই, ক্যালি-সাল, মার্ক, মার্ক-কর, মার্ক-আই-আর, নাই-অ্যাসি, ফাইটো, স্টিলি, সিপি।
#সংকলনে: ডা.এইচ.এম.আলীমুল হক
ডিএইচএমএস (বিএইচবি), কিউএইচসিবি (বিইউবি)
চেম্বার: আলহক্ব হোমিও ফার্মেসী, মৌচাক, মিজমিজি
সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ।
চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শের জন্য: ১০০টাকা বিকাশ করুন
(বিকাশ পার্সনাল: ০১৯১৬-৫১১ ৩৩৭) তারপর কল করুন
এই নাম্বারে: 01616-511337, 01816-511337