(8) Mag Phos (ম্যাগ ফস)

♣ সমনামঃ ম্যাগনেসিয়া ফসফেট, ফসফেট অব ম্যাগনেসিয়া।
♣ মায়াজমঃ সাইকোটিক, টিউবারকুলার।
♣ সাইডঃ ডানদিক।
♣ কাতরতাঃ শীতকাতর।
♣ উপযোগিতাঃ জৈব উত্তাপের অভাব। চেহারা পাতলা, শুকিয়ে গেছে অত্যন্ত স্নায়বিক, গায়ের রঙ কালো বিশেষতঃ তাদের রোগে উপযোগী। দেহের ডানদিকের রোগ। মাথা, কান, মুখ, বুক, ডিম্বাশয়, সায়াটিকা নার্ভ সব ডান দিকে আক্রান্ত হয় (বেল, ব্রায়ো, চেলিডো, কেলি-কা, লাইকো, পডো)
♣ ক্রিয়াস্থলঃ স্নায়ু, মাংসপেশি, মুখমণ্ডল, মাথা, ডানদিক।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ ফসফেট অব ম্যাগনিসিয়া সাধারণত রক্তকণিকা, মাংসপেশি, মস্তিষ্ক, মেরুদন্ডের মজ্জা, স্নায়ু ও দাঁতে উপস্হিত থাকে। এর অণুর বিঘ্ন সৃষ্টির ফলে, ব্যথা খিলধরা ও পক্ষাঘাত হয়। ব্যথাগুলোর চিড়িকমারা বিদ্যুৎ চমকানোর মতো, অথবা ছিদ্রকর; প্রায়ই যোগ থাকে সময় সময় ব্যথা ঘুরে বেড়ায়; হ্রাস গরমে : হ্রাস চাপে ; বৃদ্ধি হালকা স্পর্শে।
♣ সারসংক্ষেপঃ জৈব উত্তাপের অভাব। দেহের ডানদিকের রোগ। স্হান পরিবর্তনশীল খিলধরা তঅব্র ব্যথা হঠাৎ আসে হঠাৎ যায়। ঠাণ্ডা পানিতে গোসলে, সাধারণভাবে ঠাণ্ডায়, ঠাণ্ডা বাতাসে, অনাচ্ছাদনে, মুক্ত বাতাসে ও শীতল পানীয়ে বাড়ে। চাপে, উনুনের গরমে, ঘর্ষণে, দ্বিভাজ হলে, শক্তচাপে, গরম পানিতে গোসলে, গরম পানি পানে, উত্তাপে কমে। ভয়, দর্বল, ক্লান্ত, অবন্ন। মানসিক পরিশ্রমে অক্ষমতা। উত্তেজনাপ্রবণতা: শিরঃপীড়াকালে, চেতনার বিভ্রান্তি, দীর্ঘশ্বাস, হাই তোলে, নিদ্রালুতা ও খুব ভুলোমন। লিখনে অগ্রবাহুতে টেনে ধরার মতো ব্যথা হয়। দৃষ্টা সংক্রান্ত সমস্যা হতে মাথাব্যথা হয়।
♣ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ১) লিখলে অগ্রবাহুতে টেনে ধরার মতো ব্যথা হয়। ২) লিখলে ঊর্ধ্বংঙ্গে টান লাগে। ৩) ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ঘাড় ধোলে কানে ব্যথা হয়। ৪) স্নায়ুবিক ব্যথায় উত্তাপ প্রয়োগে ব্যথার উপশম।
<বৃদ্ধিঃ বায়ু প্রবাহে, গোসলে, ঠাণ্ডা পানিতে গোসলে, সাধারণভাবে ঠাণ্ডায়, ঠাণ্ডা বাতাসে, ঠাণ্ডা লাগালে, খাদ্য: শীতল পানীয়ে, সঞ্চালনে, অনাচ্ছাদনে, হাঁটলে, মুক্ত বাতাসে, বায়ুপ্রবণ ও ঝড়ো আবহাওয়া, সকল লক্ষণ শীতল বায়ুতে, পানিতে, ঠাণ্ডা বাতাসের ঝাপটা লেগে, খোলা বাতাসে, ঠাণ্ডা পানিতে, ডান পাশে চেপে শোলো, স্পর্শে, নির্দিষ্ট সময়ান্তরে, রাতে, উল্লাসে, দুধ পানে, চিৎ হয়ে শয়নে।
> হ্রাসঃ চাপে, উনুনের গরমে, ঘর্ষণে, দ্বিভাজ হলে, শক্তচাপে, গরম পানিতে গোসলে, গরম পানি পানে, উত্তাপে, সামনের দিকে নত হলে, সঙ্কোচিত হলে।
♣ কারণঃ দাঁতওঠা। ঠাণ্ডা বাতাস। ঠাণ্ডায় গোসল। শীতল পানিতে দণ্ডায়মান থাকলে। শীতল কর্দমসহ কাজ করলে। অধ্যয়ন। ক্যাথেটার ব্যবহারের অভ্যাস।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ বেল, জেলস, ল্যাকে।
♣ অনুপূরকঃ টিউবার।
♣ অপথ্যঃ দুধ।
♣ বর্জনীয় ঃ ঠাণ্ডা পানিতে গোসল।

= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা ম্যাগ-ফস প্রয়োগ করতে পারবো।