Phosphorus (ফসফরাস): গুরুত্বপূর্ণ রুব্রিকসহ

৮৬। ফসফরাস (Phosphorus)।
D.H.M.S. (3rd year).
♣ সমনামঃ ইয়োলো ফসফরাস, রেড ফসফরাস।
♣ রোগপ্রবণতাঃ টিউবারকুলার, হেমোরেজিক।
♣ সাইডঃ বামপাশ।
♣ কাতরতাঃ শীতকাতর।
♣ উপযোগিতাঃ লম্বা পাতলা কৃশ একহারা গড়ন, রক্তপ্রধান, গায়ের রঙ ফর্সা চকচকে, চোখের পাতার চুল, মাথার চুল হালকা ও সুন্দর বা লাল চুল, বোধশক্তি দ্রুত ও তীব্র অনুভুতি সম্পন্ন ব্যক্তি- এমন লোকদের অসুখে উপযোগী। অল্পবয়সী অথচ দ্রুত বেড়ে ওঠে ও কুঁজো হয়ে যায় (কুঁজো হয়ে হাঁটে- সালফ), যাদের গায়ের চামড়া হলদে ফ্যাকাসে হয়ে যায় বা রক্তশূন্যতায় ভোগে ও যেসব বৃদ্ধদের সকালে উদরাময় হয় তাদের এ ওষুধ উপযোগী।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ মাথা, ফুসফুস, হার্টগহ্বর, রক্ত সঞ্চালন, রক্ত, রক্তনালি, ধমনি, মিউকাস মেমব্রেন, পাকস্হলী, উদর, নার্ভাস-ব্রেন, কর্ড, অস্হি-চেয়াল, পায়ের হাড়, মেরুদণ্ড, লিভার।
♣ ফিজিওলজিক্যাল কাজঃ এর কাজ স্নায়ুমণ্ডলের ওপর অত্যন্ত অধিকরূপে প্রকাশ পায়, লোহা যে প্রকার রক্তের ওপর, চুন যে প্রকার হাড়ের ওপর-‘সে প্রকার কাজ এর স্নায়বীয় বিধানের ওপর। জীবনীশক্তির মূল প্রদেশ মস্তিষ্ক এবং কশেরুকা মজ্জাকে (Spinal cord) আক্রমণ করে এর যাবতীয় সংলগ্ন যন্ত্রগুলোকে নিস্তেজ এবং অসাড় করে ফেলে, দুর্বলতা, কাঁপা, অবশভাব, পক্ষাঘাত সবই একে একে প্রকাশ পায়- এক কথায় বলতে হলে স্নায়বীয় বিধানের রোগে ফসফরাস একটি অদ্বিতীয় ওষুধ।
♣ সারসংক্ষেপঃ জৈব উত্তাপের অভাব। শীর্ণতা, রক্তপ্রধান ধাতু বিশিষ্ট ব্যক্তি। তীক্ষ্ণ বুদ্ধি, লম্বা, পাতলা একহারা চেহারা। রক্তস্রাবের প্রবণতা। শূন্যবোধ- মাথায়, বুকে, পাকস্হলীতে, এবং নিচের সারা পেটে । প্রাতে, প্রাতরাশের পর, সন্ধাকালে, রাতে, আবহাওয়া পরিবর্তনে, সাধারণভাবে ঠাণ্ডায়, গরম খাদ্যে, শুয়ে থাকলে, ঘুমের আগে ও জাগরণে বাড়ে। আহারের পরে, শীতল পানীয়ে, মর্দনে কমে। উদ্বিগ্ন ও অস্হিরতা, ভয়, উত্তেজনা, উৎসাহহীনতা, ঔদাসীনতা, অত্যানুভূতিযুক্ত, অলসভাব ও ধীরতা। রাক্ষুসে ক্ষুধা, জ্বালা ও শূন্যতাবোধ। গরম পানি দিয়ে পা ধোলে সার্বদৈহিক লক্ষণের, উপশম হয়। অধিকাংশ পীড়ার সাথে মাথাঘোরা।
♣ অনুভূতিঃ শূন্যবোধ- মাথায়, বুকে, পাকস্হলীতে এবং নিচের সারা পেটে।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ ১) ভয় হতে অজীর্ণতা। ২) ঠাণ্ডা পানি পানে পাকস্হলীতে জ্বালাকর ব্যথা হয়। ৩) ঠাণ্ডা খাবার খেলে উদরাময়ের উপশম হয়। ৪) গরম পানি দিয়ে পা ধোলে সার্বদৈহিক লক্ষণের উপশম হয়।
< বৃদ্ধিঃ প্রাতে, সন্ধাকালে, রাতে, মধ্য রাতের আগে ও পরে, প্রাতরাশের পর, আবহাওয়া পরিবর্তনে, সাধারণভাবে ঠাণ্ডায়, আহারের পরে, গরম খাদ্যে, শুয়ে থাকলে, বিছানায় শুলে, ঘুমের আগে, ঘুম থেকে জাগরণে, প্রকোপ বাড়ে, দ্রুত ও বায়ুতে ।
> হ্রাসঃ আহারের পরে, খাদ্য, শীতল পানীয়ে, শুয়ে থাকলে, ওপুড় হয়ে শুলে, চিৎ হয়ে শুলে, একপাশে শুলে, ঋতুস্রাবকালে, মর্দনে, নিচে বসতে গেলে, ঘুমের সময়ে, বিছানায় শুলে, মদে, দাঁড়লে, আহারে, নিদ্রায়, ঠাণ্ডা খাবার, ঠাণ্ডা পানীয়, মুখমণ্ডল ঠাণ্ডা পানিতে ধোয়া, চৌম্বক শক্তিতে, বিশ্রামে, ডানপাশে শয়নে, খাবার পর, খোলা ঠাণ্ডা বাতাসে, ঘুমালে ।
♣ কারণঃ অতি-ইন্দ্রিয়ভোগ, ক্রোধ, ভয়, বিরক্তি, দুঃখ, মানসিক পরিশ্রম, উত্তেজনা, উদ্বেগ, সঙ্গীত, বৃষ্টিতে ভেজা,
♣ ইচ্ছাঃ ঠাণ্ডা খাদ্য এবং পানীয়, বরফ, জুস, লবণ, অম্ল, মদ, ফল।
♣ অনিচ্ছাঃ মিষ্টি, মাংস, ফোটানো দুধ, মাছ, কফি, চা, গরম খাদ্য, চর্বি, ধুমপান, মাখন।
♣ শত্রুভাবাপন্নঃ অ্যাপিস, কস্টি ।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ আর্স, ক্যাল্ক, ক্যাম্ফ, ক্যামো, কফি, মেজি, নাক্স-ভ, সোরি, সিপি, টেরিবিণ্হ।
♣ প্রয়োগঃ যক্ষ্মা রোগের বহু রোগীর পক্ষে, রোগের শেষ অবস্হায় খুব উচ্চ শক্তিতে ফসফরাস একটি বিপজ্জনক ওষুধ ।
= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা ফসফরাস প্রয়োগ করতে পারবো।

গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রুব্রিকঃ (ক্যান্ট রেপার্টরী অনুযায়ী)
১.১) উত্তর দেয়: অবান্তরভাবে- A= ফস, সালফ। B= হায়োস, স্ট্র্যামো।
১.২) উত্তর দেয়: অস্বীকার করে- A= ফস, সালফ। B= অ্যাগারি, আর্নি, ক্যাম্ফ, চায়না, সিমিসি, হেলি, হায়োস, স্ট্র্যামো, সাল-অ্যাসি, ভিরেট।
১.৩) উত্তর দেয়: ধীরে ধীরে- A= মার্ক, ফস-অ্যাসি, ফস,। B= অ্যানাকা, কার্বো-ভে, ককুল, কোনি, হেলি, নাক্স-ম, রাস, সালফ, থুজা।
২) উৎকণ্ঠা: ভবিষ্যৎ সম্বন্ধে – A= ব্রায়ো, ক্যাল্ক, চিনি-সাল, সাইকু, ফস।
৩.১) লোকসঙ্গ: আকাঙ্ক্ষা করে- A= আর্জ-নাই, আর্স, বিসমা, হায়োস, ক্যালি-কা, ল্যাক-ক্যান, লাইকো, ফস।
৩.২) লোকসঙ্গ: বিতৃষ্ণা : একাকী থাকলে বৃদ্ধি-A= আর্স, ফস। B= ক্যাম্ফ, ড্রসে, ক্যালি-কা, লাইকো, স্ট্র্যামো।
৪.১) ভয় (Fear) / আতঙ্ক (Dread)/ বিষম ভয় (Horror)- A= অ্যাকোন, আর্জ-নাই, অরাম, বেল, বোরা, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, কার্বো-সাল, সাইকু, গ্র্যাফ, ক্যালি-অার্স, লাইকো, লাইসি, ন্যাট্র-কা, ফস, প্ল্যাটি, সোরিন, সিপি, স্ট্র্যামো ।
৪.২) ভয়: একাকি থাকলে- A= আর্জ-নাই, আর্স, ক্রোটন, হায়োস, ক্যালি-কা, লাইকো, ফস।
৪.৩) ভয়: মৃত্যুর- A= অ্যাকোন, আর্স, ক্যাল্ক, সিমিসি, জেলস, ল্যাকে-ক্যান, নাই-অ্যাসি, ফস, প্ল্যাটি।
৪.৪) ভয়: আসন্ন রোগের- A= ক্যালি-কা, ফস,। B= আর্জ-নাই, বোরা, ক্যাল্ক, ল্যাসি, ল্যাক-ক্যান, লিলি-টি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ফস-অ্যাসি, সিপি।
৪.৫) ভয়: কিছু ঘটবে বলে- A= কস্টি, ফস।
৪.৬) ভয়: ঝড়-বজ্রের- A= ফস। B= ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, রডো, সিপি। C= সালফ।
৫) বিস্তৃতিপরায়ণ (Forgetful)- A= অ্যাম্ব্রা, ব্যারা-কা, কার্বো-সাল, ককুল, কলচি, লাইকো, মার্ক, পেট্রো, ফস-অ্যাসি, ফস, প্ল্যাটি ।
৬) ভয় (Fright) হতে রোগ- A= অ্যাকোন, ইগ্নে, লাইকো, ন্যাট্র-মি, ওপি, ফস-অ্যাসি, ফস, পালস। সাইলি।
৭.১) ঔদাসীনতা: শীতাবস্হায়- A= ওপি, ফস, ফস-অ্যাসি। B= আর্নি, কোনি, ইগ্নে, পালস, সাইলি, ভিরেট।
৭.২) ঔদাসীনতা: প্রিয়জনের প্রতি- A= হেলি, ফস, সিপি। B= অ্যাকোন। C= আর্স, ফ্লু-অ্যাসি, মার্ক, ন্যাট্র-ফস, প্ল্যাটি।
৭.৩) ঔদদসীনতা: আত্মীয়দের প্রতি- A= হেলি, ফস, সিপি। B= ফ্লু-অ্যাসি। C= হিপার, ন্যাট্র-কা, প্ল্যাটি ।
৭.৪) ঔদাসীনতা: তার (স্ত্রী) সন্তান সম্বন্ধে- A= ফস সিপি । B= লাইকো। C= ক্যালি-আই, ন্যাট্র-কা।
৮) কামুকতা, ভোগকামনাযুক্ত ( Lasciviousness lustful) A= হায়োস, ল্যাকে, লিলি-টি, ওরিগে, ফস, পিক্রি-অ্যাসি, প্ল্যাটি, স্ট্যাফি।
৯) বিতৃষ্ণা : জীবনের প্রতি- A= অ্যান্টি-ক্রু, আর্স, অরাম, চায়না, মার্ক, ন্যাট্র-মি, ফস, থুজা ।
১০) মনোঃকষ্ট রোগের পরবর্তী ;- A= কলো, ইগ্নে, লাইকো, ন্যাট্র-মি, প্যালাডি, ফস।
১১) সংজ্ঞা তীব্র ( Senses) – A= আর্স, বেল, কফি, নাক্স-ভ, ওপি, ফস।
১২) অতি-ইন্দ্রিয়ভোগ হতে রোগ (Sexual) – A= ক্যাল্ক, লাইকো, নাক্স-ভ, ফস-অ্যাসি, ফস, সিপি, স্ট্যাফি ।
১৩.১) ধীরতা (Slowness) – A= কোনি, হেলি, ফস। B= অ্যানাকা, কলো, কার্বো-ভে, গ্র্যাফ, ওপি, পালস, সিপি।
১৩.২) ধীরতা: চলাফেরা করতে- A= ফস। B= অ্যানাকা, ক্যাল্ক, কোনি। C= সিপি।
১৪) সহানুভূতিশীল (Sympathetic) – A= ফস।B= কস্টি, সাইকু, ইগ্নে, ন্যাট্র-কা নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ।
১৫) ভীরুতা ( Timidity) : A= ব্যারা-কা, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-সাল, ক্যালি-কা, লাইকো, ন্যাট্র-কা, পেট্রো, ফস, প্লাম্বা, সালফ।
১৬) প্রাতে (Morning) বাড়ে- A= অ্যাগারি, অ্যামন-মি, আর্জ-মে, আর্স-আই, অরাম, ব্রায়ো, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফ্লু, কার্বো-অ্যানি, কার্বো-সাল, কার্বো-ভে, ক্যামো, চেলিডো, সিনা, ক্রোকা, ক্যালি-বাই, ক্যালি-নাই, ল্যাকে, ন্যাট-আর্স, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ওনোস, পেট্রো, ফস-অ্যাসি, ফস, পালস, রডো, রাস, রোমেক্স, সিপি, স্পাইজে, স্কুই, সালফ, ভ্যালের ।
১৭) রাতে (Night) বাড়ে- A= অ্যাকোন, আর্জ-নাই, আর্নি, আর্স, আর্স-আই, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-আই, ক্যাল্ক-ফস, ক্যাল্ক-সাল, কার্বো-অ্যানি, কার্বো-সাল, ক্যামো, চায়না, সিন্নাবে, কফি, কলচি, কোনি, সাইক্লে, ডালকা, ফেরাম, ফেরা-আর্স, ফেরা-আই, গ্র্যাফ, হিপার, হায়োস, আয়োড, ইপি, ক্যালি-আর্স, ক্যালি-বাই, ক্যালি-কা, ক্যালি-আই, ল্যাকে, লিলি-টা, ম্যাগ-কা, ম্যাগ-মি, ম্যাঙ্গে, মার্ক, নাই-অ্যাসি, ফস, প্লাম্বা, সোরিন, পালস, রাস,রোমেক্স, সিপি, সাইলি, স্ট্রনসি, সালফ, ট্যালু, জিঙ্ক ।
১৮) সাধারণভাবে ঠান্ডায় বাড়ে (Cold in general agg)- A= আর্স, ব্যারা-কা, ক্যাল্ক-আর্স, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফ্লু, ক্যাল্ক-ফস, ক্যাল্ক-সিলি, ক্যাপসি, কস্টি, চায়না, ডালকা, গ্র্যাফ, হিপার, হাইপেরি, ক্যালি-আর্স, ক্যালি-কা, ক্যালি-ফস, লাইকো, ম্যাগ-ফস, মস্কাস, ন্যাট্র-আর্স, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ফস, সোরিন, পাইরো, র্যানান-বা, রাস, রিউমেক্স, স্যাবাডি, সিপি, সাইলি, স্পাইজে, স্ট্রনসি।
১৯) শীর্ণতাঃ (Emaciation) – অ্যাব্রোটে, আর্স, ব্যারা-কা, ক্যাল্ক, চায়না, ফেরাম, গ্র্যাফ, হেলি, আই, লাইকো, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ফস, প্লাম্বা, সেলি, সাইলি,স্ট্যানা, সালফ, টিউবার।
২০.১) খাদ্য: শীতল পানীয়ে উপশম- A= বিসমা, ব্রায়ো , কস্টি, ফস, সিপি।
২০.২) খাদ্য: গরম খাদ্যে বাড়ে- A= ব্রায়ো, ল্যাকে, ফস, পালস।
২১) রক্তস্রাব (Haemorrhage)- A= আর্নি, বেল, বোথ্রো, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-সাল, ক্যান্থা, কার্বো-ভে, চায়না, ক্রোটেল, ইরিজি, ফেরাম, হ্যামামে, ইপি, মেলিলো,মিলি, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ফস, পালস, স্যাবি, সালফ, সাল-অ্যাসি।
২২) শ্লেষ্মাক্ষরণ বর্ধিত (Mucous secretion increased) – A=অ্যালি-স্যা,ক্যাল্ক, ডালকা, হাইড্রা, আই, ক্যালি-বাই, ল্যাকে, লাইকো, মার্ক,নাক্স-ভ, পেট্রো, ফস, পালস, সালফ, ট্যাবে । B=অ্যালু, অ্যামন-মি, অ্যামন, আর্জ-নাই, আর্স, ব্যারা-কা, ব্যারা-মি, বেল, বোরা, ক্যানা-স্যাট, ক্যাপসি, কার্বো-সাল, কস্টি, ক্যামো, চায়না, সিনা, কোক্কাস, কোনি, কোপেই, ইউফ্রে, ফেরাম, হিপার, হায়োস, ইপি, ক্যালি-কা, ক্যালি-আই, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ম, ওলিয়ে, প্যারিস, রাস, রিউমেক্স, স্যাম্বু, সেনেগা, সিপি, সাইলি, স্কুই ।
২৩) আড়াআড়িভাবে অনুভুতি ( Crosswise lift lower and right upper) ডান উর্ধাঙ্গ, বাম নিম্নাঙ্গ – A= অ্যাম্রা, ফস, সাল-অ্যাসি।
২৪) দূষিতক্ষত গ্রন্হিগুলোতে – A= আর্স, লাইকো , মার্ক, ফস, সাইলি।
২৫) দ্রুত প্রকোপ বাড়ে ( fast agg.) A= আর্স, বেল, ব্রায়ো, কফি, কোনি, হায়োস, ক্যালি-ফস, নাই-অ্যাসি, ফস, পালস, সালফ, সাইলি।
২৬.১) দুর্বলতা/ ক্লান্তিঃ নির্গত হবার পর ( emissions)- A= অ্যাসে-অ্যাসি, লাইকো, ন্যাজা, নাক্স-ভ, ফস-অ্যাসি, ফস, প্লাম্বা, পালস, সাইলি, স্ট্যাফি।
২৬.২) দুর্বলতা/ ক্লান্তিঃ পক্ষাঘাতগ্রস্ত-
A= ককুল, জেলস, হেলি, মেজের, মস্কাস, মিউ-অ্যাসি, ফস-এসিড, ফস, ভিরেট।
২৬.৩) দুর্বলতা/ক্লান্তিঃ ঘাম হতে- A= ব্রায়ো, ক্যাম্ফ, কার্বো-অ্যানি, চায়না, ফেরাম, ফেরা-আই, গ্র্যাফ, হায়োস, ইগ্নে, আই, লাইকো, মার্ক, ফস, সোরিন, স্যাম্বু, টিউবার।
২৬.৪) দুর্বলতা/ক্লান্তি :হাঁটা থেকে-অ্যালু, আর্স, ব্রায়ো, ক্যাল্ক, ক্যানা-ই, কোনি, ফেরাম, ল্যাকে, মিউ-অ্যাসি, নাই-অ্যাসি, ফস-অ্যাসি, ফস, সোরিন, রাস, সিপি, স্কুই, সালফ ।

#সংকলনে: ডা.এইচ.এম.আলীমুল হক
ডিএইচএমএস (বিএইচবি), কিউএইচসিবি (বিইউবি)
চেম্বার: আলহক্ব হোমিও ফার্মেসী, মৌচাক, মিজমিজি
সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ।
চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শের জন্য: ১০০টাকা বিকাশ করুন
(বিকাশ পার্সনাল: ০১৯১৬-৫১১ ৩৩৭) তারপর কল করুন
এই নাম্বারে: 01616-511337, 01816-511337