(17) Cimicifuga (সিমিসিফিউগা)

♣ সমনামঃ অ্যাকটিয়া র‍্যাসিমোসা, সিমিসিফিউগা, কালো সাপ মূল।
♣ মায়াজমঃ সোরিক, সাইকোটিক, টিউবারকুলার।
♣ সাইডঃ বামপাশ, বিপরীত দিক।
♣ কাতরতাঃ শীতকাতর ( শিরঃপীড়ায় ঠান্ডা চায়)।
♣ উপযোগিতাঃ বাতরোগযুক্ত, স্নায়বিক ব্যাক্তি সে সাথে ডিম্বাশয়েরর উপসর্গ, জরায়ুর আক্ষেপ এবং অঙ্গ প্রত্যঙ্গে ভারবোধ করে তাদের উপযোগী।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ মস্তিষ্ক, মেরুমজ্জা, মাংসপেশি, ডিম্বাধার, মেরুমজ্জার স্নায়ু, মন, ঘাড়, বাতজনিত, রক্তাধিক্য, পক্ষাঘাত, অনিয়মিত হার্ট, দুর্বল, অতিবেদন বাত, ওভারি, জরায়ু, সন্ধিস্থল।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ মানসিক পরিমণ্ডলে অ্যাক্টিয়া র‍্যাসিমোসার একটি উল্লেখযোগ্য লক্ষণ হচ্ছে ; মনমরা ও বিষাদ অনুভূতি, সব কিছুর ওপরে যেন একটি কালো বর্ণের ভারি আচ্ছাদন ; হিস্টিরিয়া ও অবসাদ-বায়ুর যথোপযুক্ত রিমেডি হিসেবে গণ্য।
♣ সারসংক্ষেপঃ বাতরোগযুক্ত, স্নায়বিক ব্যাক্তি। ঋতুস্রাব যতো বেশি ব্যথাও ততো বেশি। মাথা ঘোরার, ক্ষেত্রে মাথার শীর্ষে পূর্ণতাবোধ বা কামড়ানোমতো বা ঢেউয়ের মতো অনুভূতি। সূর্যাস্ত হতে সূর্যোদয় পর্যন্ত, ঋতুস্রাব অবরুদ্ধে, ঋতুকালের আগে ও সময়ে এবং ঠান্ডা বাতাসে বাড়ে। আহারে, উত্তাপে, খোলা বাতাসে, চাপে ও কিছু আঁকড়ে ধরলে কমে। অস্থিরতা, স্নায়বিকতা, বিষন্নতা, দীর্ঘশ্বাস ফেলে, প্রলাপ ও ভ্রান্ত বিশ্বাস, ভয় ও পাগলামি। পর্যায়ক্রমে মানসিক ও শারীরিক লক্ষণ। ডিম্বকোষ বা জরায়ুর দোষে শ্বাসকষ্ট ও হৃৎস্পন্দন। বস্তিকোটরে আড়াআড়ি ধাবমান যন্ত্রণা। বাতজবেদনা ও ঋতুকষ্টের যুগপৎ সম্মিলন। বাতের সমস্যার সাথে বাচালতা।
♣ অনুভূতিঃ ১) মস্তিষ্কের মাঝে ঢেউয়ের মতো অনুভূতি। মাথা ঘোরার ক্ষেত্রে মাথা শীর্ষে পূর্ণতাবোধ বা কামড়ানো অনুভূতি।
২) ঠান্ডা বাতাসে মনে হয় শরীরের ভেতরে বিঁধছে।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ ১) ঘাড়ের আড়ষ্টতার সাথে মানসিক বিমূঢ়ভাব।
২) বাতের সমস্যার সাথে বাচালতা।
৩) বাতের সমস্যা বা হাত-পায়ের ভারবোধ বা ডিম্বাশয়ের যন্ত্রণাকর অবস্হা বা জরায়ুর ব্যথার সাথে স্নায়ুবিক উত্তেজনা।
< বৃদ্ধিঃ দিবাভাগে, প্রাত ১০-১১টায়, অপরাহ্ন ৫টা হতে রাত ৮টা, সন্ধাকালে, সূর্যাস্ত হতে সূর্যোদয় পর্যস্ত, ঋতুস্রাব অবরুদ্ধে,ঋতুকালের আগে ও সময়ে, স্পর্শে, দেহ সঞ্চালনে, গরম ঘরে, প্রসবকালে, ভাবাবেগে, মদ, ভোরে, রাতে, সন্ধ্যায়, পিউবার্টি এবং ক্লাইমেক্সিস, আবহাওয়া পরিবর্তনে, শুকনো বা ভেজা ঠান্ডায়, শীতকালে, কর্ষাকালে, স্যাঁতস্যাঁতে ঠাণ্ডা আবহাওয়ায়, সাধারণভাবে ঠান্ডায়, ঠান্ডা বাতাসে, ঠান্ডা লাগালে, নিদ্রাহীনতা।
> হ্রাসঃ আহারে, উত্তাপে, বিশ্রামে, নির্মল বায়ুতে, গরম আচ্ছাদনে, খোলা বাতাসে, চাপে, চা পানে, সর্বদা সঞ্চালনে, কিছু আঁকড়ে ধরলে, ঋতুস্রাবকালে, খাবার পর।
♣ কারণঃ ভয়, দুশ্চিন্তা, উৎকন্ঠা, আতঙ্ক, প্রেমে ব্যর্থতা, ব্যবসায় অকৃতকার্য, অত্যধিক পরিশ্রম, অতিরিক্ত সন্তান গর্ভধারণ করা, দন্তোদ্গমকালীন।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ অ্যাকোন, ব্যাপটি, জেলস, ক্যাম্ফ, পালস।

= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা সিমিসিফিউগা র‍্যাসিমোসা প্রয়োগ করতে পারবো।