China off (চায়না অফ): গুরুত্বপূর্ণ রুব্রিকসহ

৩৭। চায়না অফিসিন্যালিস (China off)
D.H.M.S. (1st year).
♣ সমনামঃ সিঙ্কোনা অফিসিন্যালিস, হলুদ পেরুভিয়ান বার্ক, কুইন কুইনা, জেসুইস বার্ক প্রভৃতি।
♣ মায়াজমঃ সোরিক, সাইকোটিক, টিউবারকুলার, সিফিলিটিক।
♣ সাইডঃ বামপাশ, ওপরে বামপাশ নিচে ডানপাশ।
♣ কাতরতাঃ শীতকাতর।
♣ উপযোগিতাঃ ফ্যাকাসে এবং অত্যন্ত দুর্বলতা, চোখের, চারপাশে নীলচে দাগ, জিহ্বা সাদা প্রলেপযুক্ত ও রুগ্ন মুখাকৃতি।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ রক্ত, রক্ত সঞ্চালন প্রক্রিয়া, স্নায়ু, দৈহিক নিঃসরণ-হজম ক্রিয়ার যন্ত্রসমূহ, যকৃত, প্লীহা, শ্লৈষ্মিক ঝিল্লি।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ কোনো জীবনীয় তরল ধাতুর অতিরিক্ত ক্ষয়ের ফলে যে তরুণ রোগ বা তরুণ লক্ষণ উপস্হিত হয় তার জন্য চায়নার ব্যবহার ফলপ্রদ, কিন্তু পুরনো অবস্হা আসলে চায়না কোনো ফল প্রদর্শন করতে পারেনা। এর কারণ অন্য কিছুই নয়, কেবল ওষুধটির ক্রিয়া আদৌ গভীর নয় বলেই এরূপ হয়ে থাকে। গ্যাংলিয়োনিক নার্ভাস সিস্টেমের ওপর এর প্রধান ক্রিয়া।
♣ সারসংক্ষেপঃ রক্তপ্রধান ধাতু বিশিষ্ট ব্যক্তি, প্রতিক্রিয়াহীনতার অভাব, জৈব তরল পদার্থের ক্ষয়ে শীর্ণতা প্রাপ্তির পর তরুণ রোগ ও দুর্বলতা। রক্তস্রাব-প্রবণতা, শোথ ও রক্তস্রাবের সাথে আক্ষেপ। রাতে, সাধারণভাবে ঠাণ্ডায়, দুধে, ফলে, সঞ্চালনে, ঘামের পর, জীবনী শক্তিপ্রদ তরল পদার্থের ক্ষয়ে, স্পর্শে, শব্দে ও নিদির্ষ্ট সময়ে বাড়ে। জাগরণে, দাঁতে ও মাথায় খুব জোরে চাপে, কাপড় আলগা করলে ও উত্তাপে কমে। উৎকণ্ঠা, অত্যানুভূতিযুক্ত, বিতৃষ্ণা: জীবনের প্রতি, মানসিক কাজে। ভ্রান্ত বিশ্বাস, মানসিক অবসাদ, বিষণ্নতা, অলসভাব উৎসাহহীনতা ও ভয়। রক্তস্রাবের সাথে ঠাণ্ডা চটচটে ঘাম হয়।
♣ অনুভূতিঃ
১) প্রতিবার শ্বাস গ্রহণকালে পেটে শীতলতা বোধ করে।
২) জরায়ুতে ভারবোধ হাঁটলে বাড়ে।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ
১) গৃহপালিত জীবযন্তুর ভয়।
২) নড়াচড়ায় পিঠে ঘাম হয়/ঘাড়ে ঘাম হয়।
৩) পাকস্হলীর লক্ষণ উপবাসে উপশম হয়।
৪) সীম খেলে/ মুসরীর ডাল খেলে/ টাটকা মাংস খেলে/ নাশপাতি খেলে বুক জ্বালা করে।
♣ < বৃদ্ধিঃ রাতে, সাধারণভাবে ঠাণ্ডায়, দুধে, ফলে, টক খাদ্যে, সঞ্চালনে, ঘামের পর, জীবনী শক্তিপ্রদ তরল পদার্থের ক্ষয়ে, স্পর্শে, শব্দে নিদির্ষ্ট সময়ে ।
♣ > হ্রাসঃ একপাশে চেপে শুলে, চুম্বক শক্তিতে, জাগরণে, ঘুমের পরে, উপুর হলে, দাঁতে ও মাথায় খুব জোরে চাপে, কাপড় আলগা করলে, শয়নে, মুক্ত বাতাসে, উত্তাপে।
♣ কারণঃ দেহের তরল পদার্থের ক্ষয় (যেমন- রক্ত, শুক্র, শ্বেতপ্রদহ, পুঁজ, স্তনদুধ, উদরাময়, লালাস্রাব ইত্যাদি), মার্কারি ও কুইনাইনের অপব্যহার, হস্তমৈথুন, রাগ, সর্দি চাপা পড়া, মদ, চা পান, জ্বর, ঠাণ্ডা হাওয়া গায়ে লাগালে, মানসিক আবেগে, টকফল খেয়ে।
♣ ইচ্ছাঃ ঘন ঘন ঠাণ্ডা পানির ইচ্ছা, অল্প পরিমাণ পানি পান, প্রচণ্ড ক্ষুধার্থ, টক, ফল, মিষ্টি, মদ, ব্রান্ডি, হুইস্কি, অম্লদ্রব্য।
♣ অনিচ্ছাঃ সকল খাবার, সীম, মাংস, গরম খাবার, কফি, দুধ, ফল।
♣ অসহ্যঃ দুধ, মাথায় চিরুণী।
♣ শত্রুভাবাপন্নঃ ডিজি এবং সেলিনিয়াম এর পর।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ অ্যারেলিয়া, আর্নিকা, অ্যাপিস, আর্স, বেল, ব্রায়ো, কার্বো-ভে, কার্বো-অ্যানি, ক্যাল্ক, ক্যাপসি, কস্টি, সিনা, ইউপে-পার্ফ, ফেরাম, ইপি, ল্যাকে, লিডাম, লাইকো, মেনিয়েন্থিস, মার্ক, নেট্রা-কা, নেট্র-মি, নাক্স-ভ, পালস, রাস, সিপিয়া, সালফ, ভ্যারেট।
♣ এটি ক্রিয়ানাশকঃ আর্স, ক্যাল্ক, ক্যামো, কফি, ফেরাম, হেলি, আয়োড, মার্ক, সালফ, ভ্যারেট।
♣ প্রয়োগঃ ১) রাতের জ্বরে চায়না ব্যবহৃত হয় না।—- ডা. হরিপ্রসাদ চক্রবর্তী।
২) চায়না নিম্নশক্তি অপেক্ষা উচ্চশক্তি ভালো কাজ করে।
= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা চায়না প্রয়োগ করতে পারবো।

গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রুব্রিকঃ
( ক্যান্ট রেপার্টরী অনুযায়ী)
১.১) ক্রোধ : আদর করলে- চায়না।
১.২) ক্রোধ : এরূপ যেনো কাউকে ছুরি মারতে পারে- A= হিপার। B= চায়না, মার্ক, নাক্স-ভ।
২) ভ্রান্ত বিশ্বাস : অনুপস্থিত ব্যক্তির সাথে কথা বলে যেনো তার ওপর অত্যাচার করা হচ্ছে –
A= চায়না, ড্রসে।
৩.১) অলসভাব : প্রাতে- A= অ্যানা-কা, চায়না।
B= অ্যাম্রা, গ্র্যাফ, ফস-অ্যাসি, স্যাম্বুল, থুজা।
৩.২) অলসভাব : জাগলে A= চায়না। B= ইস্কু।
৪.১) ভয় : জীবযন্তু সম্বন্ধে -A= চায়না। B= স্ট্র্যামো।
৪.২) ভয় : কুকুরের – A= বেল, চায়না।
B= কস্টি, হায়োস, স্ট্র্যামো, টিউবার।
৫) আলস্য, কাজ-কর্মে অনিচ্ছা (Indolence, aversion to work )/ উচ্চাকাঙ্ক্ষা (Ambition) লুপ্ত- A= কার্বো-সাল, চেলিডো, চায়না, গ্র্যাফ, ল্যাকে, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, সিপি, সালফ।
৬) লাফ দেয় বিছানা হতে- A= চায়না, হায়োস, ওপি, স্ট্র্যামো। B= অ্যাকোন, আর্জ-নাই, আর্স, চিনি-সাল, কুপ্রা, গ্লোন, মার্ক।
৭) বিতৃষ্ণা : জীবনের প্রতি- A= অ্যান্টি-ক্রু, আর্স, অরাম, চায়না, মার্ক, ন্যাট্র-মি, ফস, থুজা ।
৮) ভুল করে : ভুলশব্দ ব্যবহার করে- A= চায়না, লাইকো, নাক্স-ম। B= অ্যালু, অ্যামন-কা, আর্নি, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, ডালকা, ক্যালি-ব্রো, থুজা।
৯) ভর্ৎসনা করে : অপরকে- A= আর্স, চায়না।
B= অ্যাকোন, হায়োস, ল্যাকে, লাইকো, ন্যাট্র-মি, নাক্স-ভ।
১০) বসে থাকার প্রবৃত্তি (Sit, inclination to)- A= চায়না, কোনি, গ্র্যাফ, গুয়াই হিপ্পো, নাক্স-ভ, ফস, পালস, স্কুই ।
১১) আত্মহত্যার প্রবৃত্তি : কিন্তু সাহসের অভাব- A= চায়না, নাক্স-ভ।
১২) কাঁদেঃ আদর করলে- A= চায়না। C= ইগ্নে।
১৩) কাজ, মানসিক কাজে বিতৃষ্ণা (Work aversion to mental)- A= অ্যালোজ, ব্যাপটি চেলিডো, চায়না, ল্যাসি, নাক্স-ভ ফস।
১৪) রাতে (Night) বাড়ে- A= অ্যাকোন, আর্জ-নাই, আর্নি, আর্স, আর্স-আই, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-আই, ক্যাল্ক-ফস, ক্যাল্ক-সাল, কার্বো-অ্যানি, কার্বো-সাল, ক্যামো, চায়না, সিন্নাবে, কফি, কলচি, কোনি, সাইক্লে, ডালকা, ফেরাম, ফেরা-আর্স, ফেরা-আই, গ্র্যাফ, হিপার, হায়োস, আয়োড, ইপি, ক্যালি-আর্স, ক্যালি-বাই, ক্যালি-কা, ক্যালি-আই, ল্যাকে, লিলি-টা, ম্যাগ-কা, ম্যাগ-মি, ম্যাঙ্গে, মার্ক, নাই-অ্যাসি, ফস, প্লাম্বা, সোরিন, পালস, রাস,রোমেক্স, সিপি, সাইলি, স্ট্রনসি, সালফ, ট্যালু, জিঙ্ক ।
১৫) রক্তাল্পতা ( Anaemia) – A= আর্স, বোরা, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, চায়না, ফেরাম, ফেরা-আর্স, গ্র্যাফ, হেলি, ক্যালি-আর্স, ক্যালি-কা, ক্যালি-ফস, ম্যাঙ্গে, মেডো, মার্ক, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, ফস, প্লাম্বা, পালস, স্কুই, স্ট্যাফি, সালফ।
১৬) নর্তন রোগ ( Chorea) – A= অ্যাগারি, আর্টি-ভা, ক্যাল্ক, কস্টি, সাইকু, চায়না, সিমিসি, সিনা, কুপ্রা, ইগ্নে, স্ট্র্যামো, ট্যারেন্টু।
১৭) সাধারণভাবে ঠান্ডায় বাড়ে-(Cold in general agg)- A= আর্স, ব্যারা-কা, ক্যাল্ক-আর্স, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফ্লু, ক্যাল্ক-ফস, ক্যাল্ক-সিলি, ক্যাপসি, কস্টি, চায়না, ডালকা, গ্র্যাফ, হিপার, হাইপেরি, ক্যালি-আর্স, ক্যালি-কা, ক্যালি-ফস, লাইকো, ম্যাগ-ফস, মস্কাস, ন্যাট্র-আর্স, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ফস, সোরিন, পাইরো, র্যানান-বা, রাস, রিউমেক্স, স্যাবাডি, সিপি, সাইলি, স্পাইজে, স্ট্রনসি।
১৮.১) শোথ বাহ্যিকভাবে ( Dropsy, external) – A= অ্যাপিস, আর্স, চায়না, কলচি, ডিজি, গ্রাফ, হেলি, মেডো, ওলিয়ে, ওপি, স্কুই, টেরিবি।
১৮.২) শোথ : অভ্যন্তরীন – A= অ্যাপিস, আর্স, বেল, কার্ডুমে, চায়না, কলচি, ডিজি, হেলি, সালফ।
১৯) শীর্ণতা : জৈব তরল পদার্থের ক্ষয় হেতু- A= চায়না, লাইকো, চেলি।
২০) খাদ্য : দুধে বাড়ে- A= ইথু, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-সাল, চায়না, কোনি, ল্যাক-ডি, নাই-অ্যাসি, সিপি, সালফ।
২১) কঠিনতা (Indurations)/ শক্তভাব (Hardness)- A= ব্যাডি, বেল, ক্যাল্ক-ফ্লু, কার্বো-অ্যানি, কার্বো-ভে, চায়না, ক্লিমে, কোনি, ল্যাকে, ম্যাগ-মি, ফস, রাস, সেলি, সিপি, সাইলি, স্ট্যাফি।
২২) সঞ্চালনে বাড়ে (Motion agg.) A= বেল, বিসমা, ব্রায়ো, চেলিডো, চায়না, ককুল, কলচি, কলো, গুয়াই, লিডাম, মার্ক, নাক্স-ভ, র্যানান-বা, স্যাবি, সাইলি, সালফ।
২৩) ) পর্যাবৃত্তি ( Periodicity) – A- অ্যাকোন, অ্যাগারি, অ্যালু, আর্জ-মে, আর্স, সিড্রন, চায়না, চিনি-আর, চিনি-সাল, ইপি, ক্যালি-নাই, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, সিপি, সাইলি।
২৪) ঘামের পর লক্ষণ বাড়ে- A= চায়না, ফস-অ্যাসি, সিপি।
২৫) জাগরণে : উপশম – A= অ্যালু, অ্যামন-কা, অ্যাসাফ, ক্যাল্ক, কস্টি, চেলিডো, চায়না, সাইকু, স্যাম্বু, সিপি।
২৬.১) দুর্বলতা/ক্লান্তি: উদরাময় হতে- A= আর্স, চায়না, নাই-অ্যাসি, ওলিয়ে, পিক্রি-অ্যাসি, পডো, সিপি, সাইলি, ভিরেট।
২৬.২) দুর্বলতা/ক্লান্তিঃ স্নায়ুবিক- A= চায়না, কলো, ল্যাকে, ন্যাট-কা, ন্যাট্র-ফস, নাই-অ্যাসি, পিক্রি-অ্যাসি, পালস, সিপি, সিলি, স্ট্যানা, স্ট্যাফি।
২৬.৩) দুর্বলতা/ক্লান্তি: ঘাম হতে- A= ব্রায়ো, ক্যাম্ফ, কার্বো-অ্যানি, চায়না, ফেরাম, ফেরা-আই, গ্র্যাফ, হায়োস, ইগ্নে, আই, লাইকে, মার্ক, ফস, সোরিন, স্যাম্বু, টিউবার।
লেখক-Dr. Moin Uddin
সূত্র-অনলাইন কালেকশন
-ডা. এইচ এম আলীমুল হক,
আলহক্ব হোমিও ফার্মেসী, মুক্তিস্মরণী (চিটাগাংরোড)
শিমরাইল মোড়, সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ।
০১৯২০-৮৬৬ ৬১০