Natrum Sulph (ন্যাট্রাম সালফ): গুরুত্বপূর্ণ রুব্রিকসসহ

১৩৭.১। নেট্রাম সালফ (Natrum Sulph)।
DHMS (2nd year).
♣ সমনামঃ গ্লুবার্স সল্ট, সোডা সালফার।
♣ মায়াজমঃ সোরিক, সাইকোটিক, সিফিলিটিক।
♣ সাইডঃ ডানপাশ ও বামপাশ।
♣ কাতরতাঃ গরমকাতর।
♣ উপযোগিতাঃ স্যাঁতস্যাঁতে বা মাটির তলার ঘরে বাস করে যে সব রোগ বেড়ে যায় এবং যাদের দেহে গনোরিয়া বিষ মারাত্মক রোগ লক্ষণের সৃষ্টি করে ও যে কোনো রোগ হতে ধীরে ধীরে আরোগ্য হয় সেক্ষেত্রে উপযোগী।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ মাথার পেছন দিক, গ্ল্যান্ডস, লিভার, পিত্ত, মূত্রযন্ত্র, পাকস্হলী, শ্বাসযন্ত্র, চামড়া, মন, মাথা, জননেন্দ্রিয়, অন্ত্রের গ্রন্হি, বুক ও বামপাশে, প্যানক্রিয়াস, ইন্টেস্টাইন্যাল, ডিসেন্ডিং কোলন।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ নেট্রাম সালফ. যখন পিত্তথলি, অগ্নাশয়নালি ও অন্ত্রের বহিস্ত্বকের কোষকে উত্তেজিত করে তখন এসব অঙ্গ থেকে স্রাব উৎপন্ন হয়ে দেহ থেকে নিষ্ক্রমণ হয়।
♣ সারসংক্ষেপঃ “হাইড্রোজেনইড ধাতু ‘ বিশিষ্ট ব্যক্তি, শুকনো আবহাওয়া হতে ভেজা আবহাওয়া পরিবর্তন হলেই যারা অসুস্থ হয়ে পড়ে। জল, জলাভূমি ও জলীয় খাদ্যে বৃদ্ধি। আর্দ্র আবহাওয়ায়, ময়দা দ্বারা প্রস্তুত খাবারে, ফলে, কাঁচা সবজিতে, শুয়ে থাকলে, ঝড়-বৃষ্টির ফলে, বর্ষাকালে ও স্যাঁতস্যাঁতে ঘরে বাস করলে বাড়ে। খোলা বাতাসে, শুষ্ক আবহাওয়ায়, মলত্যাগের পর ও টিপে দিলে কমে। খিটখিটে, বিরক্ত, মানসিক অবসাদ, বিষণ্নতা, আত্নহত্যার প্রবৃত্তি, চমকে ওঠে ও কাঁদে। জিব ধুসর বর্ণের সে সাথে জিবের গোড়া সবুজ বর্ণের। শোক হতে হাঁপানি ও শ্বাসকষ্ট। প্রাতঃকালীন মলত্যাগ এবং মলত্যাগকালে প্রচুর বায়ু নিঃসরণ। নখ পঁচে যাওয়া। সাতার কাটা অথবা উড়ে যাবার স্বপ্ন দেখে।
♣ অনুভূতিঃ মস্তষ্ক চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে গেছে ; একটি চিমটার জন্য অথবা ব্রেনের মাঝে কিছু নড়ছে।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ ১) স্ত্রীজননাঙ্গে নরম, লাল ও মাংসের বর্ণের শ্লেষ্মাগুটি। ২) ডায়াবেটিসের সাথে জিব উজ্জ্বল লাল বর্ণের হয়ে যায়। ৩) সন্ধাবেলা বাতির আলোকে পড়া-শোনা করলে চোখের পাতা ভারি হয়ে যায়।
< বৃদ্ধিঃ সন্ধ্যায়, রাতে, আর্দ্র আবহাওয়ায়, বাঁধা কপিতে, কফিপানে, ময়দা দ্বারা প্রস্তুত খাবারে, ফলে, দুধে, গোল আলু খেলে, কাঁচা সবজিতে, শুয়ে থাকলে, গরমে, স্যাঁতস্যাঁতে ঘরে বাস করলে, ঝড়-বৃষ্টির ফলে, মনে আঘাতে, বর্ষাকালে।
> হ্রাসঃ খোলা বাতাসে, অবস্হান পরিবর্তনে, গরম খাদ্যে, চিৎ হয়ে শুলে, সঞ্চালনে, চাপে, শুষ্ক আবহাওয়ায়, পাশ পরিবর্তনে, শয়নে, সকালের নাস্তা, দুপুরের খাবার পর, মলত্যাগের পর, ব্যায়ামের পর, টিপে দিলে।
♣ কারণঃ ঘাম চাপা পড়া, আঘাত, ক্রোধ, মাথায় আঘাত, গনোরিয়া অবরুদ্ধে, কুইনাইনের অপব্যবহারে, O.C পিল এর কুফলে, ভেজা, বৃষ্টিপূর্ণ আবহাওয়ায়, অ্যান্টি-ডায়ানেটিক, অ্যান্টি-হাইপারটেনসিভ কুফলে, স্যাঁতস্যাঁতে ঘরে বসবাস।
♣ ইচ্ছাঃ বরফ এবং ঠান্ডা বরফ পানি।
♣ অনিচ্ছাঃ মাংস এবং রুটি।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ বেল, ডালকা, নাঃ স্পিরিট, থুজা।
♣ বর্জনীয় খাদ্যঃ বাঁধাকপি, কফি, শ্বেতসার খাদ্য, ফল, দুধ, সবুজ শাক-সবজি, মাছ, তরমুজ, রসালো ফল, গরম খাদ্য, লবণ।
♣ প্রয়োগঃ আমি জানি ভুলভাবে প্রযুক্ত হলে ওষুধটি অনেক ক্ষেত্রে নাক দিয়ে প্রবল রক্তপাত ঘটায়। ইদানিং কালে একটি ক্ষেত্রে রোগী যতবারই একমাত্রা করে সেবন করছে ততবারই তার নাকের রক্তপাত, বমি এবং পাতলা পায়খানা হচ্ছে । – ডা. ই. রাইট।
= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা ন্যাট্র-সাল প্রয়োগ করতে পারবো।

গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রুব্রিকঃ (ক্যান্ট রেপার্টরী অনুযায়ী)
১) আনন্দিত: মলত্যাগের পর- A= ন্যাট্র-সাল। B= বোরা। C= ন্যাট্র-কা, অক্স্যা-অ্যাসি।
২) মনের বিশৃঙ্খল অবস্হা: মাথায় আঘাত লাগার পর- A= ন্যাট্র-সাল ।
৩) বিতৃষ্ণা : জীবনের প্রতি, নিজেকে আঘাত করা হতে সংযত থাকতে হয়- A= ন্যাট্র-সাল।
৪) বিষন্নতা, মানসিক অবসাদ ( Sadness, mental depression) – A= অ্যাকোন, আর্স, আর্স-আই, অরাম, অরাম-মি, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-আর্স, ক্যাল্ক-সাল, কার্বো-অ্যানি, কার্বো-সাল, কস্টি, ক্যামো, চায়না, সিমিসি, ক্রোট-কা, ফেরাম, ফেরা-আই, জেলস, গ্র্যাফ, হেলি, হিপ্পো, ইগ্নে, আই, ক্যালি-ব্রো, ক্যালি-ফস, ল্যাক-ক্যান, ল্যাকে, ল্যাপ্টে, লিলি-টি, লাইকো, মার্ক, মেজের, মিউরে, ন্যাট-আর্স, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-সাল, নাই-অ্যাসি, প্ল্যাটি, সোরিন, পালস, রাস, সিপি, স্ট্যানা, সালফ, থুজা, ভিরেট।
৫.১) চমকে ওঠে: ভয় হতে- A= বেল, বোরা, হায়োস, ক্যালি-কা, ক্যালি-ফস, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-সাল, নাই-অ্যাসি, স্ট্র্যামো ।
৫.২) চমকে ওঠে : গোলমাল হতে- A= বোরা, ক্যালি-কা, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-ফস, ন্যাট্র-সাল, নাক্স-ভ, সাইলি।
৬.১) আত্মহত্যার প্রবৃত্তি (Suicidal disposition) -A= অরাম, অরাম-মি, ন্যাট্র-সাল।
৬.২)আত্মহত্যার প্রবৃত্তি :ঐ চিন্তা- A=অরাম, ন্যাট্র-সাল, সোরিন । B=হিপার, ইগ্নে, মার্ক, পালস, রাস।
৭) খোলা বাতাসে উপশম- A= অ্যালু, আর্জ-নাই, আর্স, ক্যানা-ই, আই, ক্যালি-আই, ম্যাগ-কা, ম্যাগ-মি, ন্যাট্র-সাল, পালস, রাস, স্যাবাডি, স্যাবি ।
৮) আর্দ্র আবহাওয়ায় বাড়ে- A= অ্যামন-কা, আর্স, ব্যাডি, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, কলচি, ডালকা, মেডো, ন্যাট্র-সাল, নাক্স-ম, পাইরো, রডো, রাস, সাইলি, টিউবার ।
৯.১) খাদ্য : ময়দা দ্বারা প্রস্তুত খাবারে বাড়ে- A= ন্যাট্র-সাল, ন্যাট্র-মি। B= কস্টি। C= লাইকো, ন্যাট্র-কা, নাক্স-ভ, সালফ।
৯.২) খাদ্য : ফলে বাড়ে- A= আর্স, ব্রায়ো, চায়না, কলো, ন্যাট্র-সাল, পালস, ভিরেট।
৯.৩) খাদ্য : কাঁচা সবজিতে বাড়ে- A= ন্যাট্র-সাল । B= অ্যালু, ব্রায়ো, হেলি। C= আর্স, কুপ্রা, লাইকো, ন্যাট্র-কা, ভিরেট।
১০) উত্তাপের অনুভুতি (Heat)- A= অ্যাপিস, ক্যাল্ক-সাল, ক্যানা-স্যাট, কোক্কাস, কফি, ফ্লু-অ্যাসি, আই, ক্যাল-সাল, লিলি-টি, লাইকো, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-সাল, পালস, সিকেলি, সালফ, সাল-অ্যাসি, সাল-আই।
১১) রক্তে শ্বেতকণিকার আধিক্য (Leqkaemia) – A= ন্যাট্র-আর্স, ন্যাট্র-সাল। B= ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, কার্বো-সাল, চায়না, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-ফস, পিক্রি-অ্যাসি। C= অ্যাসে-অ্যাসি, আর্স, কার্বো-ভে, নাক্স-ভ,,,,,,
১২) শুয়ে থাকলে বাড়ে- (Lying agg) A= অ্যাপিস, আর্স, অরাম, ক্যাপসি, ক্যামো, কোনি, ড্রসে, ইউফর্বি, ফেরাম, হায়োস, ক্যালি-কা, লাইকো, মিনিয়ে, ন্যাট্র-সাল, ফস, প্ল্যাটি, পালস, রাক্স, রিউমেক্স, স্যাম্বু, স্যাঙ্গুই, ট্যারাক্সি ।
১৩) পারদের অপব্যহার। (Mercury) A=অরাম, কার্বো-ভে, হিপার, ক্যালি-আই, ল্যাকে, ন্যাট্র-সাল, নাই-অ্যাসি, ফাইটো, স্ট্যাফি, সালফ ।
১৪) ছিন্নকর ব্যথা বাহ্যিকভাবে- A= অ্যাকোন, ইস্কু, আর্নি, বেল, বার্বে, ব্রায়ো, কার্বো-সাল, চায়না, সাইকু, সিনা, কলচি, হাইপেরি, ইগ্নে, ক্যালি-কা, ক্যালি-ফস, ক্যালি-সাল, লিডাম, লাইকো, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-ফস, ন্যাট্র-সাল, নাই-অ্যাসি, পালস, সিপি, সাইলি, সালফ।
১৫.১) দুর্বলতা/ ক্লান্তিঃ সকালে- A= অ্যাগারি, আর্স, ল্যাকে, লাইকো, ফস-এসিড, সিপি।
B= অ্যাম্রা, আর্জ-মে, আর্স-আই, ব্রায়ো, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-সাল, কার্বো-ভে, জেলস, গ্র্যাফ, আই, ম্যাগ-কা, ম্যাগ-মি, মার্ক, ন্যাট্র-আর, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-ফস, ন্যাট্র-সাল, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, পেট্রো, ফস, পালস, রাস, সাইলি, স্পাইজে, স্ট্যানা, স্ট্যাফি, ভিরেট।
১৫.২) দুর্বলতা/ ক্লান্তিঃ হাঁটা থেকে- A= অ্যালু, আর্স, ব্রায়ো, ক্যাল্ক, ক্যানা-ই , কোনি, ফেরাম, ল্যাকে, মিউ-অ্যাসি, নাই-অ্যাসি, ফস-এসিড, ফস, সোরিন, রাস, সিপি, স্কুই, সালফ।
B= অ্যানাকা, আর্স-আই, বার্বে, কার্বো-অ্যানি, কার্বো-সা, কার্বো-ভে, চায়না, ককুল, আই, ক্যালি-কা, ন্যাট্র-আর, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-সাল, প্লাম্বা, সাইলি, ভিরেট, জিঙ্ক।
১৭) ভেজালাগা: আবহাওয়ায় (Weather)-
A= অ্যামন-কা, আর্স, আর্ন-আই, ব্যাডি, ক্যাল্ক, ডালকা, ন্যাটো-হ, ন্যাট্র-সাল, নাক্স-ম, পালস, রডো, রাস।

#সংকলনে: ডা.এইচ.এম.আলীমুল হক
ডিএইচএমএস (বিএইচবি), কিউএইচসিবি (বিইউবি)
চেম্বার: আলহক্ব হোমিও ফার্মেসী, মৌচাক, মিজমিজি
সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ।
চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শের জন্য: ১০০টাকা বিকাশ করুন
(বিকাশ পার্সনাল: ০১৯১৬-৫১১ ৩৩৭) তারপর কল করুন
এই নাম্বারে: 01616-511337, 01816-511337