Medorrhinum (মেডোরিনাম): গুরুত্বপূর্ণ রুব্রিকসহ

২৯.২। মেডোরিনাম (Medorrhinum)।
D.H.M.S. ( 4th year).
♣ সমনামঃ নোসোড অব গনোরিয়া, গ্লিনিকাম, গনোরিয়া বা প্রমেহবিষ।
♣ মায়াজমঃ সাইকোটিক, টিউবারকুলার।
♣ সাইডঃ ওপরে ডানপাশ নিচে বামপাশ।
♣ কাতরতাঃ গরমকাতর।
♣ উপযোগিতাঃ খর্বতা, জৈব উত্তাপের অভাব, প্রতিক্রিয়াহীনতার অভাব। গনোরিয়া চাপা পড়ে বা কুচিকিৎসিত হবার কুফলে ধাতুগত রোগ যখন সঠিকভাবে নির্বাচিত ওষুধে উপশম দেয় না বা স্থায়ীভাবে সারে না তখন উপযোগী।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ মন, নার্ভস, রক্ত, যৌনাঙ্গ, স্তন ও স্তনের বোটা, চামড়া, ঠোট, মিউকাস, মেমব্রেন, লিম্ফ্যাটিক, সেলুলার টিসু, ফুসফুস, উদর ক্ষুদ্র সন্ধি, মেরুদন্ড, কিডনি, বাম ওভারি, জরায়ু, ডিম্বাশয়, শ্বাসযন্ত্র, লসিকাগ্রন্থি, বস্তিকোটর, সন্ধি।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ মেডোরিনামের মাঝে প্রখর স্নায়ুবিক চেতনাশক্তি রয়েছেে। বিশেষতঃ কাপড়ের অথবা চুুলের বেনীতে স্পর্শ করলে বুঝতে পারে।
♣ সারসংক্ষেপঃ খর্বতা, জৈব উত্তাপের অভাব, প্রতিক্রিয়াহীনতার অভাব। বংশগত প্রমেহদোষ ও উপযুক্ত ওষুধের ব্যর্থতা। জ্বালা, ব্যথা, স্পর্শকাতরতা। উত্তাপের ঝলকাবোধ: শীত শীতভাবের সাথে পর্যায়ক্রমে, উত্তাপের অনুভুতি: রক্তবহা নালিগুলোতে। সূর্যোদয় হতে সূর্যস্ত পর্যন্ত, সূর্যালোকে, প্রস্রাবের পর, রোগের চিন্তায়, আর্দ্র আবহাওয়ায়, আচ্ছাদনে, উত্তাপে ও বিছানার গরমে বাড়ে। সূর্যাস্তের পর, পা ভাঁজ করে বুকের ওপর রাখলে, অনাচ্ছাদনে, বর্ষার দিনে ও মুক্ত বাতাসে কমে। মন্হরতা ব্যস্ততা ও ক্রন্দনশীলতা, ভয়, উৎকণ্ঠা, স্মৃতিশক্তির দুর্বলতা, বদ্ধমূল ধারণা, ধর্মানুরাগ ও অনুশোচনা। গনোরিয়া চাপা পড়ার পর হতে উদরাময় বা ডায়রিয়া। অপক্ক ফল খাওয়ার আকাঙ্ক্ষা। হাতে ও পায়ের পাতায় পাখার বাতাস চায়।
♣ অনুভূতিঃ চোখের মাঝে, পাতা ও চোখের কোণে কাঠি রয়েছে এমন অনুভুতি ; যেনো চোখের মাঝ দিয়ে ঠান্ডা বাতাস প্রবাহিত হচ্ছে ; যেনো চোখের ওপর পাতায় উপাস্থি ছিলো।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ ১) নবজাতক শিশুদের মলদ্বারের চারপাশে দানা দানা উদ্ভেদ।
২) যৌন সম্পর্কের নতুন অবস্হা থেকেই মূত্রনালির পুরনো প্রকৃতির প্রদাহ।
৩) স্নায়বিক ব্যথা হঠাৎ বেড়ে এবং হঠাৎ কমে যায়।
< বৃদ্ধিঃ দিবাভাগে, সূর্যোদয় হতে সূর্যাস্ত পর্যন্ত, সূর্যালোকে, ভোর ৩-৪টায়, স্পর্শে, প্রস্রাবের পর, বন্ধ ঘরে, রোগের চিন্তায়, বজ্রপাতের ও ঝড়ের আগে এবং ভেজা ও ঠাণ্ডা বায়ু প্রবাহে, আর্দ্র আবহাওয়ায়, আচ্ছাদনে, নড়াচড়ায়, অতি প্রত্যুষে, উত্তাপে, বিছানার গরমে, অত্যন্ত ক্রদ্ধ হওয়ার মহুর্তে।
> হ্রাসঃ সন্ধ্যাকালে, মুক্ত হাওয়ায়, সূর্যাস্তের পর, পেটের ওপর চেপে শয়নে, পা ভাঁজ করে বুকের ওপর রাখলে, পেছনে বাঁকলে
♣ কারণঃ গনোরিয়া চাপা পড়লে ।
♣ ইচ্ছাঃ অপক্ক ফল, লবণ, মিষ্টি, তামাক, উত্তেজক পদার্থ ।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ ইপি (শুষ্ককাশি), নাক্স-ভ ।
♣ নিষিদ্ধঃ তরুন পীড়ায়।
♣ বর্জনীয় খাদ্যঃ মিষ্টি, লবণ।
♣ প্রয়োগঃ ১) এ নোসোড ওষুধটি অবশ্যই ঘনঘন পুনঃপ্রয়োগ করবে না । ডা. বোরিক ।
২) কোনো রোগীর বাত হলে বুঝতে হবে যে, তার পিতা বা পিতামহ প্রভৃতি পূর্বপুরুষদের কখনে প্রমেহ রোগ ছিলো: অতএব রোগটি মেডোরিনামেই উপকার হবে । -ডা. টি ওয়াইল্ডস ।
= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা মেডোরিনাম প্রয়োগ করতে পারবো।

গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রুব্রিকঃ (ক্যান্ট রেপার্টরী অনুযায়ী)
১.১) উৎকণ্ঠা: বিবেক দংশনে- A= অ্যালু, আর্স, অরাম, চেলিডো, ডিজি, সোরিন। B= অ্যামন-কা, কার্বো-ভে, কস্টি, ককুল, কোনি ফেরাম, গ্র্যাফ, হায়োস, ইগ্নে, মেডো, মার্ক, ন্যাট্র-মি, নাক্স-ভ, রাস, সাইলি, সালফ, থুজা, ভিরেট, জিঙ্ক।
১.২) উৎকণ্ঠা: আত্মার মুক্তির সম্বন্ধে – A= আর্স, ল্যাকে, লিলি-টা, ভিরেট | B= অরাম, ক্যাল্ক, ক্যাম্ফর, গ্র্যাফ, লাইকো, মেডো, মেজের, সোরিন, পালস, স্ট্র্যামো সালফ।
২) দুঃসংবাদ (Bad news)হতে পীড়া- A= জেলস। B= অ্যাপিস, ইগ্নে, মেডো, ন্যাট্র-মি, প্যালাডি, সালফ।
৩) ভয়: অন্ধকারের- A= ক্যানা-ই, স্ট্র্যামো। B= অ্যাকোন, ক্যাল্ক, ক্যাম্ফ, কার্বে-অ্যানি, কার্বো-ভে, কস্টি, কুপ্রা, লাইকো, মেডো, ফস,পালস, স্ট্রনসি।
৪) তাড়াতাড়ি করে (Hurry)- A= লিলি-টা, মেডো, মার্ক, ন্যাট্র-মি, সালফ, সাল-অ্যাসি, ট্যারেন্টু।
৫) অধৈর্যভাব: সামান্য ব্যাপারে- B= মেডো, সালফ, সাল-অ্যাসি। C= ক্যালি-ফস, মার্ক, ন্যাট্র-মি।
৬.১) স্মৃতিশক্তির দুর্বলতা (Memory weakness of)- A= অ্যাম্ব্রা, আর্জ-নাই, আর্স, ব্যারা-কা, বিউফো, বিউফো-সা, কার্বো-সাল, কস্টি, কলচি, কোনি, গ্লোন, হেলি, হিপার, হায়োস, ক্যালি-ফস, ল্যাকে, লাইকো, মেডো, মার্ক, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ম, ফস-অ্যাসি, ফস, প্ল্যাটি, প্লাম্বা, সিপি, ভিরেট।
৬.২) স্মৃৃতিশক্তির দুর্বলতা: প্রকৃত শব্দটি সম্বন্ধে- B= অ্যানাকা, গুয়াই, লাইকো, মেডো, সালফ।
৬.৩) স্মৃৃতিশক্তির দুর্বলতা: যা পড়েছে সে সম্বন্ধে-A= হেলি, ল্যাকে, স্ট্যাফি। B= হায়োস, লাইকো,মেডো, মার্ক, ন্যাট্র-মি, ওনোস, ফস-অ্যাসি।
৬.৪) স্মৃৃতিশক্তির দুর্বলতা: যা বলেছে সে সম্বন্ধে -A= হেলি,হায়োস। B= আর্নি, ব্যারা-কা, ক্যানা-ই, কার্বো-ভে, মেডো, মেজের, মিউ-অ্যাসি, সোরিন।
৬.৫) স্মৃৃতিশক্তির দুর্বলতা: কী বলে যাচ্ছে সে সম্বন্ধে -A= হেলি। B= আর্জ-নাই, আর্নি, ক্যানা-ই, মেডো, ন্যাট্র-মি, ওনোস, সালফ।
৬.৬) স্মৃৃতিশক্তির দুর্বলতা: আগমুহূর্তে কী চিন্তা করেছে সে সম্বন্ধে-B= ক্যানা-ই, ককুল, হায়োস, মেডো।
৭) ধর্মানুরাগ (Religious affection)- A= হায়োস, ল্যাকে, লিলি-টা, সালফ, ভিরেট, জিঙ্ক। B= আর্জ-নাই, আর্স, অরাম, বেল, ক্যাল্ক, কার্বো-ভে, ক্যামো, চেলিডো, গ্র্যাফ, ইগ্নে, ক্যালি-ফস, লাইকো, মেডো, মেজের, প্ল্যাটি, সোরিন, পালস, সিপি, স্ট্র্যামো।
৮) অনুশোচনা (Remorse)- A= কফি। B= আর্স, অরাম, বেল, ককুল কুপ্রা, ডিজি, হায়োস, ইগ্নে, মেডো, পালস, সাইলি, ভিরেট, জিঙ্ক।
৯) স্বার্থপরতা (Selfishness)- B= পালস, সালফ। C= অ্যাগারি, অ্যাসাফ, ক্রোট, ইগ্নে, মেডো, মস্কাস, পাইরাস, ভ্যালের।
১০) সময়: অতি ধীরে ধীরে যায়- A= ক্যানা-ই, গ্লোন। B= অ্যালু, আর্জ-নাই, মেডো, মার্ক, নাক্স-ম, নাক্স-ভ।
১১) অবাস্তব, সব কিছুই মনে হয় (Unreal, everything seems)-B= অ্যালু, মেডো।
১২.১) কাঁদে: লক্ষণগুলো উপশমিত হয়- B= অ্যানাকা, ডিজি, গ্র্যাফ, লাইকো, মেডো, প্ল্যাটি।
১২.২) কাঁদে: তাকে কিছু বললে- B= মেডো, ন্যাট্র-মি, প্ল্যাটি, স্ট্যাফি।
১২.৩) কাঁদে: যখন নিজের রোগ বর্ণনা করে- A= পালস, সিপি। B= ক্যালি-কা, মেডো।
১৩) মাথার মাঝে দুষ্টবুদ্ধি (Wild feeling in head)- B= মেডো। C= ব্যাপটি, লিলি-টি।
১৪) দিবাভাগে (Daytime)বাড়ে- A= সিপি, স্ট্যানা, স্ট্যাফি। B= ফেরাম, মেডো, ন্যাট্র-আর্স, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, পালস, রাস, স্যাঙ্গুই,।
১৫) সন্ধ্যাকালে উপশম: B= অ্যালু, মেডো, সিপি ।
১৬) রক্তাল্পতা ( Anaemia) – A= আর্স, বোরা, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, চায়না, ফেরাম, ফেরা-আর্স, গ্রাফ, হেলি, ক্যালি-আর্স, ক্যালি-কা, ক্যালি-ফস, ম্যাঙ্গে, মেডো, মার্ক, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, ফস, প্লাম্বা, পালস, স্কুই, স্ট্যাফি, সালফ।
১৭) আর্দ্র আবহাওয়া বাড়ে- A- অ্যামন-কা, আর্স, ব্যাডি, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, কলচি, ডালকা, মেডো, ন্যাট্র-সাল, নাক্স-ম, পাইরো, রডো, রাস, সাইলি, টিউবার ।
১৮) শোথ বাহ্যিকভাবে ( Dropsy, external) – A= অ্যাপিস, আর্স, চায়না, কলচি, ডিজি, গ্রাফ, হেলি, মেডো, ওলিয়ে, ওপি, স্কুই, টেরিবি।
১৯) খর্বতা (Dwarfishness)- A= ব্যারা-কা, ক্যাল্ক-ফস, সালফ। B= ব্যারা-মি, ক্যাল্ক, কার্বো-সাল, মেডো, ওলি-জে।
২০) গণোরিয়া (Gonorrhdea)- অবরুদ্ধ – B= ক্যাল্ক, ক্লিমে, নাই-অ্যাসি, পালস, সার্সা, স্ট্যাফি। C= অ্যাগ্নাস, অরাম, ব্যানজো-অ্যাসি, ব্রোমি, ক্রোটেল, ড্যাফ, ক্যালমি, মেডোর, মার্ক, মেজের, থুজা, ভিরেট, জিঙ্ক ।
২১) উত্তেজনা প্রবণতা ( Irritability, excessive physical) অত্যধিক, দৈহিক – A= অ্যাপিস, আর্নি, অ্যাসের, অরাম, বেল, ক্যান্থা, কফি, মেডো, মার্ক, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, সাইলি, স্ট্যাফি, টিউক্রি।
২২) প্রতিক্রিয়াহীনতার অভাব (Reaction lack of)- A= অ্যাম্ব্রা, অ্যামন-কা, ক্যাল্ক, ক্যাপসি, কার্বো-ভে, কস্টি, ক্যামো, কোনি, জেলস, হেলি, হাইড্রো-অ্যাসি, মেডো, ওলিয়ে, ওপি, ফস-অ্যাসি, সোরিন, সালফ।
২৩) অত্যন্ত ক্রুদ্ধ হওয়া (during storm)- A=ন্যাট্র-কা। B= ব্রায়ো, জেলস, ল্যাকে, মেডো, ফস, রডো, সিপি, সাইলি।
২৪) সাইকোসিস (Sycosis)- A= আর্জ-মে, আর্জ-নাই, ক্যালি-সাল, মেডো, সিপি, স্ট্যাফি, থুজা।

#সংকলনে: ডা.এইচ.এম.আলীমুল হক
ডিএইচএমএস (বিএইচবি), কিউএইচসিবি (বিইউবি)
চেম্বার: আলহক্ব হোমিও ফার্মেসী, মৌচাক, মিজমিজি
সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ।
চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শের জন্য: ১০০টাকা বিকাশ করুন
(বিকাশ পার্সনাল: ০১৯১৬-৫১১ ৩৩৭) তারপর কল করুন
এই নাম্বারে: 01616-511337, 01816-511337