Tuberculinum (টিউবারকুলিনাম):গুরুত্বপূর্ণ রুব্রিকসহ

১০৯। টিউবারকুলিনাম বোভিনাম (Tuberculinum Bovinum)
D.H.M.S. ( 4th year).
♣ সমনামঃ টিউবারকল ব্যাসিলাই বা যক্ষ্মাজীবাণু, মাইক্রো ব্যাকটেরিয়াম, বোভিস এবং এভিয়ার।
♣ মায়াজমঃ সোরিক, সিফিলিটিক, টিউবারকুলার।
♣ সাইডঃ ডানপাশ।
♣ কাতরতাঃ শীতকাতর ও উভয় কাতর।
♣ উপযোগিতাঃ ঠান্ডা লাগার প্রবণতা, শীর্ণতা: ক্রমশঃ শুকিয়ে যাচ্ছে এরূপ বালক, কৃশ/ শুকনো ব্যক্তি। হালকা রঙ, নীল চোখ, কালোদের চেয়ে ফর্সা যারা তাদের বেশি উপযোগী। লম্বা, পাতলা গড়ন, বুক চেপ্টা, সরু, চটপটে, মানসিকভাবে পরিণত অথচ দৈহিকভাবে দুর্বল, যক্ষ্মাপ্রবণ এমন লোকদের পক্ষে উপযোগী।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ ফুসফুস, মন, গ্ল্যান্ড, মাথার পেছন দিন, মাথা, লেরিংস, উদর, চামড়া, অক্সিপুট।
♣ ব্যবহারের পূর্বশর্তঃ
১) কোনো রোগীতে টিউবারকুলিনাম প্রয়োগের আগে তার পূর্বপুরুষের কারো মস্তিষ্ক বিকৃতি বা পূর্ব বিকশিত যক্ষ্মারোগের ইতিহাস আছে কিনা তা দেখা উচিত। ২) কোনো কারণ ছাড়া দীর্ঘদিন যাবত রোগীর শুষ্ক ও শীর্ণ হতে থাকা। ৩) ঠান্ডা লাগার প্রবণতা, প্রতি সকাল ও সন্ধ্যায় সর্দি কাশির বৃদ্ধি। ৪) অবিরত রোগ লক্ষণের পরিবর্তন।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ যক্ষ্মা রোগের সূচনায় একটি অমূল্য ওষুধ। যখন লক্ষণগুলো অবিরত পরিবর্তিত হতে থাকে এবং সুনির্বাচিত ওষুধেও ফল হয় না, যখন সামান্য মাত্র ঠান্ডা লাগলেই সর্দি জন্মে।
♣ সারসংক্ষেপঃ ঠান্ডা লাগার প্রবণতা, লম্বা, পাতলা গড়ন, বুক চেপ্টা, সরু, চটপটে, মানসিকভাবে পরিণত অথচ দৈহিকভাবে দুর্বল, যক্ষ্মাপ্রবণ এমন লোক। বংশগত ক্ষয়দোষ ও উপযুক্ত ওষুধের ব্যর্থতা। রোগ ও রোগীর পরিবর্তনশীলতা। উত্তাপের ঝলকাবোধ: ঘামসহ। ঠান্ডা পানিতে গোসলে, আবহাওয়া পরিবর্তনে, ঠান্ডা হতে গরম পড়লে, আর্দ্র আবহাওয়ায়, দৈহিক ও মানসিক পরিশ্রমে বাড়ে। বিছানায় শুলে, খোলা বাতাসে, সন্ধার প্রাক্বালে ভ্রমণে, ঘাম বের হলে ও উত্তাপে কমে। খিটখিটে, বিশ্বনাগরিক, স্মৃতিশক্তির দুর্বলতার, ভয়, যৌনাকাঙ্ক্ষা, বাচালতা, অলসভাব ও বুদ্ধিমান / বোকাটে। দুধ পান করলে চামড়ার অ্যালার্জি দেখা দেয়। অকারণে সুনির্দিষ্ট ব্যক্তিদের প্রতি অনীহা। দাঁড়িয়ে থাকলে শরীরের সন্ধিগুলোর ব্যথা হয়। ঠান্ডা দুধ, কলা ও পোড়া মাংস খাবার ইচ্ছে।
♣ অনুভূতিঃ ১) উত্তাপের ঝলকাবোধ: ঘাম ।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ ১) শালীনতার ভানে-ভরা স্ত্রীলোকের স্বপ্ন দেখে। ৩) থেকে থেকে নাকিসুরে কথা বলে বা নাকিসুরের কন্ঠ।
= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা টিউবারকুলিনাম বোভিনাম প্রয়োগ করতে পারবো।

গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রুব্রিকঃ (ক্যান্ট রেপার্টরী অনুযায়ী)
১) জিনিস পত্র ভাঙতে ( Break things) ইচ্ছে করে- B= অ্যাপিস, স্ট্র্যামো, টিউবার।
২) আনন্দিত ( Cheerful) / খুশি/সুখি/সন্তুষ্ট ( Contented) / স্ফুর্তি ( Gaiety) / প্রসন্নভাব ( Good humour) / আহ্লাদিত ( Joyous)- A= ক্যানা-ই, কফি, ক্রেকা, ল্যাকে, ন্যাট্র-কা। B= অ্যাকোন, আর্জ-মে, অরাম, বেল, কার্বো-অ্যানি, সাইকু, ফ্লু-অ্যাসি, হায়োস, ইগ্নে, লাইকো, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ম, নাক্স-ভ, ওপি, ফস, প্ল্যাটি, সার্সা, সালফ, সাল-অ্যাসি, ট্যারাক্সি, ট্যারেন্টু, টিউবার, ভিরেট, জিঙ্ক।
৩) ধ্বংস প্রবৃত্তি ( Destructiveness) – B= বেল, ক্যাম্ফ, কুপ্রা, হায়োস, স্ট্র্যামো, ট্যারেন্টু, টিউবার, ভিরেট।
৪) বিমূঢ় ( Dollness) / অলসভাব ( Sluggishness) : আর্জ-নাই, ব্যাপটি, ব্যারা-কা, ব্যারা-মি, বেল, ব্রায়ো, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, ক্যাল্ক-সাল, কার্বো-ভে, জেলস, গ্রাফ, গুয়াই, হেলি, হায়োস, ক্যালি-ব্রো, ক্যালি-কা, লরো, লাইকো, ন্যাট-আর্স, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, নাক্স-ম, ফস-অ্যাসি, পিক্রি-অ্যাসি, পালস, সেনেগা, সিপি, সাইলি, স্ট্যাফি, স্টিলি, সালফ, টিউবার।
৫.১) ভয়, কুকুরের- A= বেল, চায়না। B= কস্টি, হায়োস, স্ট্র্যামো, টিউবার।
৫.২) ভয়, কিছু ঘটবে বলে- A= কস্টি, ফস। B= আর্স, ক্যাল্ক, কার্বো-ভে, আই, ক্যালি-আই, ক্যালি-ব্রো, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-ফস, ওনোস, ফস-অ্যাসি, টিউবার।
৬) আশাযুক্ত ( Hopeful)- B= টিউবার। C= অ্যাকোন, ফেরা-ম্যাগ, হাইড্রা, সেনেগা।
৭) ভ্রমণ প্রবৃত্তি ( Travel, desire to) : A= ক্যাল্ক -ফস। B= হিপ্পো, আই। C= অ্যানান্থে, অরাম, সিমিসি, কিউরে, ইল্যাপ্স, ল্যাকে, মার্ক, স্যানিকি, টিউবার।
৮) ঠান্ডা পানিতে গোসলে বাড়ে- A= অ্যান্টি-ক্রু, ম্যাগ-ফস, রাস, টিউবার।
৯) আবহাওয়া পরিবর্তনে বাড়ে- A= ডালকা, নাক্স-ম, ফস, সোরিন, র্যানান-বা, রডো, রাস, সাইলি, টিউবার।
১০) ঠাণ্ডা হতে গরম পড়লে বাড়ে- A= ব্রায়ো, ক্যালি-সাল, সোরিন, সালফ, টিউবার।
১১) ঠান্ডা লাগার প্রবণতা- A=অ্যাকোন, অ্যালু, ব্যারা-কা, ব্রায়ো, ক্যালি-ফস, ক্যামো, ডালকা, হিপার, ক্যালি-কা, ক্যালি-ফস, লাইকো, মার্ক, ন্যাট্র-আর্স, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, সোরিন, রিউমেক্স, সিপি, সাইলি, টিউবার ।
১২) আর্দ্র আবহাওয়ায় বাড়ে- A= অ্যামন-কা, আর্স, ব্যাডি, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, কলচি, ডালকা, মেডো, ন্যাট্র-কা, নাক্স-ম, পাইরো, রডো, রাস, সাইলি, টিউবার।
১৩) শীর্ণতাঃ (Emaciation) – অ্যাব্রোটে, আর্স, ব্যারা-কা, ক্যাল্ক, চায়না, ফেরাম, গ্র্যাফ, হেলি, আই, লাইকো, ন্যাট্র-মি, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ফস, প্লাম্বা, সেলি, সাইলি,স্ট্যানা, সালফ, টিউবার। B= অ্যাসেট-অ্যাসি, অ্যাগারি, অ্যালু, অ্যাম্ব্রা, অ্যাপিস, আর্জ-মে, আর্জ-নাই, ব্যারা-মি, ব্রায়ো, বিউফো, ক্যাল্ক-ফস, ক্যাম্ফ, ক্যান্হা, কার্বো-সাল, কার্বো-ভে, ক্যামো, চেলিডো, ক্লোরা, সিয়ানোথ, ক্লিমে, ককুল, কলচি, কলো, ক্রোটেল-ক্যাস্ক, কুপ্রা, ফেরা-আর্স, ফেরা-আই, ফেরা-মি, ফ্লু-অ্যাসি, গুয়াই, হেলোনি, হিপার, হাইড্রা, ইগ্নে, ইপি, ক্যালি-কা, ক্যালি-আই, ক্যালি-ফস, ল্যাকে, মার্ক, ন্যাট-আর্স, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-ফস, ন্যাট্র-সাল, ওলি-জে, ওপি, পেট্রো, ফস-অ্যাসি, পালস, সার্সা, সিকেলি, ট্যারেন্টু, টেরিবি, ভিরেট।
১৪) উত্তাপের ঝলকাবোধ (Flashes of heat) –
A= ক্যাল্ক, কস্টি, ককুল, গ্লোন, ল্যাকে, লাইকো, ম্যাঙ্গে, ন্যাট্র-সাল, নাই-অ্যাসি, ফস, সোরিন, সিপি, সালফ, সাল-অ্যাসি, স্যাম্বুল, থুজা, টিউবার ।
১৫) দ্রুত প্রকোপেরর উপশম- A= সিপি, টিউবার। B= আর্জ-নাই, ইগ্নে, স্ট্যানা, সাল-অ্যাসি,
১৬) বিছানায় শুলে উপশম ( amel) – A= আর্স, ব্রায়ো, হিপার, ক্যালি-কা, লাইকো, নাক্স-ম, নাক্স-ভ, রাস, সিল, টিউবার।
১৭) দুর্বলতা/ক্লান্তি (Weakness enervation) -A= অ্যামন-কা, অ্যান্টি-টা, অ্যাপিস, আর্নি, আর্স, আর্স-আই, ব্র্যাপটি, ব্যারা-কা, ক্যাল্ক, চায়না, কলচি, ফেরাম, ফেরা-আই, ফেরা-মেট। জেলস, গ্র্যাফ , আই, ক্যালি-কা, ক্যালি-ফস, ক্যালমি, ল্যাকে, লরো,মার্ক, মার্ক-কর, মার্ক-সায়ান, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, ওলিয়ে, ফস-অ্যাসি, ফস,পিক্রি-অ্যাসি, প্লাম্বা, সোরিন, র্যানান-বা, রাস, সিকেলি, সেলে, সিপি, সিল, স্কুই, স্ট্যানা, স্ট্যাফি, সালফ, টিউবার, ভিরেট ।

#সংকলনে: ডা.এইচ.এম.আলীমুল হক
ডিএইচএমএস (বিএইচবি), কিউএইচসিবি (বিইউবি)
চেম্বার: আলহক্ব হোমিও ফার্মেসী, মৌচাক, মিজমিজি
সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ।
চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শের জন্য: ১০০টাকা বিকাশ করুন
(বিকাশ পার্সনাল: ০১৯১৬-৫১১ ৩৩৭) তারপর কল করুন
এই নাম্বারে: 01616-511337, 01816-511337