Cimicifuga/Aralia Racimosa (সিমিসিফিউগা বা একটিয়া রেসিমোসা): গুরুত্বপূর্ণ রুব্রিকসহ

৩৮। সিমিসিফিউগা বা একটিয়া রেসিমোসা (Cimicifuga/Aralia Racimosa)
D.H.M.S. (3rd year).
♣ সমনামঃ অ্যাকটিয়া র্যাসিমোসা, সিমিসিফিউগা, কালো সাপ মূল।
♣ মায়াজমঃ সোরিক, সাইকোটিক, টিউবারকুলার।
♣ সাইডঃ বামপাশ, বিপরীত দিক।
♣ কাতরতাঃ শীতকাতর ( শিরঃপীড়ায় ঠান্ডা চায়)।
♣ উপযোগিতাঃ বাতরোগযুক্ত, স্নায়বিক ব্যাক্তি সে সাথে ডিম্বাশয়েরর উপসর্গ, জরায়ুর আক্ষেপ এবং অঙ্গ প্রত্যঙ্গে ভারবোধ করে তাদের উপযোগী।
♣ ক্রিয়াস্থলঃ মস্তিষ্ক, মেরুমজ্জা, মাংসপেশি, ডিম্বাধার, মেরুমজ্জার স্নায়ু, মন, ঘাড়, বাতজনিত, রক্তাধিক্য, পক্ষাঘাত, অনিয়মিত হার্ট, দুর্বল, অতিবেদন বাত, ওভারি, জরায়ু, সন্ধিস্থল।
♣ বৈশিষ্ট্যঃ মানসিক পরিমণ্ডলে অ্যাক্টিয়া র্যাসিমোসার একটি উল্লেখযোগ্য লক্ষণ হচ্ছে ; মনমরা ও বিষাদ অনুভূতি, সব কিছুর ওপরে যেন একটি কালো বর্ণের ভারি আচ্ছাদন ; হিস্টিরিয়া ও অবসাদ-বায়ুর যথোপযুক্ত রিমেডি হিসেবে গণ্য।
♣ সারসংক্ষেপঃ বাতরোগযুক্ত, স্নায়বিক ব্যাক্তি। ঋতুস্রাব যতো বেশি ব্যথাও ততো বেশি। মাথা ঘোরার, ক্ষেত্রে মাথার শীর্ষে পূর্ণতাবোধ বা কামড়ানোমতো বা ঢেউয়ের মতো অনুভূতি। সূর্যাস্ত হতে সূর্যোদয় পর্যন্ত, ঋতুস্রাব অবরুদ্ধে, ঋতুকালের আগে ও সময়ে এবং ঠান্ডা বাতাসে বাড়ে। আহারে, উত্তাপে, খোলা বাতাসে, চাপে ও কিছু আঁকড়ে ধরলে কমে। অস্থিরতা, স্নায়বিকতা, বিষন্নতা, দীর্ঘশ্বাস ফেলে, প্রলাপ ও ভ্রান্ত বিশ্বাস, ভয় ও পাগলামি। পর্যায়ক্রমে মানসিক ও শারীরিক লক্ষণ। ডিম্বকোষ বা জরায়ুর দোষে শ্বাসকষ্ট ও হৃৎস্পন্দন। বস্তিকোটরে আড়াআড়ি ধাবমান যন্ত্রণা। বাতজবেদনা ও ঋতুকষ্টের যুগপৎ সম্মিলন। বাতের সমস্যার সাথে বাচালতা।
♣ অনুভূতিঃ
১) মস্তিষ্কের মাঝে ঢেউয়ের মতো অনুভূতি।
২) মাথা ঘোরার ক্ষেত্রে মাথা শীর্ষে পূর্ণতাবোধ বা কামড়ানো অনুভূতি।
৩) ঠান্ডা বাতাসে মনে হয় শরীরের ভেতরে বিঁধছে।
♣ ক্রম ও সহচর লক্ষণঃ
১) ঘাড়ের আড়ষ্টতার সাথে মানসিক বিমূঢ়ভাব।
২) বাতের সমস্যা বা হাত-পায়ের ভারবোধ।
৩) বাতের সমস্যার সাথে বাচালতা।
৪)ডিম্বাশয়ের যন্ত্রণাকর অবস্হা বা জরায়ুর ব্যথার সাথে স্নায়ুবিক উত্তেজনা।
♣ < বৃদ্ধিঃ দিবাভাগে, প্রাত ১০-১১টায়, অপরাহ্ন ৫টা হতে রাত ৮টা, সন্ধাকালে, সূর্যাস্ত হতে সূর্যোদয় পর্যস্ত, ঋতুস্রাব অবরুদ্ধে,ঋতুকালের আগে ও সময়ে, স্পর্শে, দেহ সঞ্চালনে, গরম ঘরে, প্রসবকালে, ভাবাবেগে, মদ, ভোরে, রাতে, সন্ধ্যায়, পিউবার্টি এবং ক্লাইমেক্সিস, আবহাওয়া পরিবর্তনে, শুকনো বা ভেজা ঠান্ডায়, শীতকালে, কর্ষাকালে, স্যাঁতস্যাঁতে ঠাণ্ডা আবহাওয়ায়, সাধারণভাবে ঠান্ডায়, ঠান্ডা বাতাসে, ঠান্ডা লাগালে, নিদ্রাহীনতা।
♣ > হ্রাসঃ আহারে, উত্তাপে, বিশ্রামে, নির্মল বায়ুতে, গরম আচ্ছাদনে, খোলা বাতাসে, চাপে, চা পানে, সর্বদা সঞ্চালনে, কিছু আঁকড়ে ধরলে, ঋতুস্রাবকালে, খাবার পর।
♣ কারণঃ ভয়, দুশ্চিন্তা, উৎকন্ঠা, আতঙ্ক, প্রেমে ব্যর্থতা, ব্যবসায় অকৃতকার্য, অত্যধিক পরিশ্রম, অতিরিক্ত সন্তান গর্ভধারণ করা, দন্তোদ্গমকালীন।
♣ ক্রিয়ানাশকঃ অ্যাকোন, ব্যাপটি, জেলস, ক্যাম্ফ, পালস।
= উপরোক্ত লক্ষণ সাদৃশ্যে যে কোন রোগেই আমরা সিমিসিফিউগা র্যাসিমোসা প্রয়োগ করতে পারবো।

গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রুব্রিকঃ
১) উত্তর দেয় : দ্রুতভাবে – B= লাইকো। C= আর্স, বেল, ব্রায়ো, সিমিসি, ককুল, হিপার, ল্যাকে, রাস, স্ট্রিকনি।
২) প্রলাপ : বাচালতাসহ- A= সিমিসি, ল্যাকে, ল্যাকন্যান্থ, স্ট্র্যামো।
৩.১) ভ্রান্তবিশ্বাস : জীবজন্তু সম্বন্ধে ইঁদুর, নেংটি ইঁদুর, পোকা প্রভৃতি – B= ইথু, সিমিসি, মেডো। C= বেল, স্ট্র্যামো।
৩.২) ভ্রান্ত বিশ্বাস : যেনো তাকে (স্ত্রী) কালো মেঘে ঢেকে ফেলেছে- B= সিমিসি।
৩.৩) ভ্রান্তবিশ্বাস : উন্মাদ, ভাবে সে উন্মাদ হবে- A= সিমিসি। B= অ্যাকোন, চেলিডো, ম্যাঞ্চে।
৪) ভয় : মৃত্যুর- A= অ্যাকোন, আর্স, ক্যাল্ক, সিমিসি, জেলস, ল্যাকে-ক্যান, নাই-অ্যাসি, ফস, প্ল্যাটি।
৫) গুল্মবায়ু রোগ : অজ্ঞান হয়ে পড়ে : ঋতুকালে- C= সিমিসি।
৬) বাচালতা : দ্রুত বিষয় পরিবর্তন করে- A= ল্যাকে। B= সিমিসি। C=অ্যাগারি, লাইকো, প্যারিস।
৭) মানসিক লক্ষণ ও দৈহিক লক্ষণ পর্যায়ক্রমে দেখা দেয়- B= সিমিসি, ক্রোকা, লিলি-টি, প্লাটি।
৮) অস্হিরতা, স্নায়বিকতা (Restlessness, nervousness) /অস্হির (Fidgety) – অ্যাকোন, অ্যানাকা,আর্জ-নাই,আর্স,আর্স-আই,ব্যাপটি,বেল,ক্যাল্ক,ক্যাল্ক -ফস,ক্যাম্ফ,সিমিসি,সাইকু, কলো, কুপ্রা, কুপ্রা-আর্স,ফেরাম, ফেরা-আর্স, হায়োস, লাইকো, মার্ক, প্লাম্বা, পালস, রাস, সিকেলি,সিফি, সাইলি,স্ট্যাফি, স্ট্র্যামো, সালফ,ট্যারেন্টু,জিঙ্ক ।
৯.১) বিষন্নতা, মানসিক অবসাদ ( Sadness, mental depression) : A= অ্যাকোন, আর্স, আর্স-আই, অরাম, অরাম-মি, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-আর্স, ক্যাল্ক-সাল, কার্বো-অ্যানি, কার্বো-সাল, কস্টি, ক্যামো, চায়না, সিমিসি, ক্রোট-ক্যাস্ক, ফেরাম, ফেরা-আই, জেলস, গ্রাফ, হেলি, হেপ্পো, ইগ্নে, আই, ক্যালি-ব্রো, ক্যালি-ফস, ল্যাক-ক্যান, ল্যাকে, ল্যাপ্টে, লিলি-টি, লাইকো, মার্ক, মেজের, মিউরে, ন্যাট-আর্স, ন্যাট্র-কা, ন্যাট্র-মি, ন্যাট্র-সাল, নাই-অ্যাসি, প্লাটি, সোরিন, পালস, রাস, সিপি, স্ট্যানা, সালফ, থুজা, ভিরেট।
৯.২) বিষন্নতা : প্রসব ব্যথার সময়- B= ইগ্নে, ভিরেট। C= সিমিসি, ল্যাকে, ন্যাট্র-মি, পালস, রাস, সালফ, জিঙ্ক।
৯.৩) বিষন্নতা : গর্ভকালে- B= ন্যাট্র-মি। C= সিমিসি, ল্যাকে।
১০) দীর্ঘশ্বাস ফেলে ( Sighing) – A= ক্যাল্ক-ফস, সিমিসি, ইগ্নে।
১১) সূর্যাস্ত হতে সূর্যোদয় পর্যন্ত বাড়ে- B= অরম, সিফিলি। C= সিমিসি, কলচি।
১২) ঘুরে বেড়াতে চায় ( Wander, desires to) – B= ক্যাল্ক-ফস। C= সিমিসি, মার্ক, ভিরেট।
১৩) নর্তন রোগ ( Chorea) – A= অ্যাগারি, আর্টি-ভা, ক্যাল্ক, কস্টি, সাইকু, চায়না, সিমিসি, সিনা, কুপ্রা, ইগ্নে, মাইগেল, স্ট্র্যামো, ট্যারেন্টু।
১৪) ঠাণ্ডা বাতাসে বাড়ে- A= অ্যাগারি, অ্যালি-স্যা, আর্স, অরাম ব্যারা-কা, ক্যাল্ক, ক্যাল্ক-ফস, ক্যাম্ফ, কস্টি, সিমিসি, সিস্টা, ডালকা, হেলি, হিপার, হাইপেরি, ক্যালি-আর্স, ক্যালি-কা, লাইকো, ম্যাগ-ফস, মস্কাস, নাক্স-ম, নাক্স-ভ, সোরিন, র্যানান-বা, রডো, রডো, রাস, রিউমেক্স, স্যাবাডি, সিপি, সাইলি, স্ট্রনসি ।
১৫) আকুঞ্চন বাহ্যিকভাবে ( Constriction externally) – A= সিমিসি, ককুল, গ্রাফ, হায়োস, মার্ক, নাই-অ্যাসি, নাক্স-ভ, প্লাম্বা, রাস, স্ট্যানা, স্ট্র্যামো।
১৬) মূর্চ্ছাকল্পতা ( Faintness, fainting) – A= অ্যাকোন, আর্স, ব্রায়ো, কস্টি, ক্যামো, চায়না, ক্রোটেল, ডিজি, গ্লোন, ইগ্নে, আই, ল্যাকে, মস্কাস, নাক্স-ম, নাক্স-ভ, প্লাম্বা, রডো, পালস, সিপি, স্ট্র্যামো, সালফ, স্যাম্বুল, ভিরেট।
১৭) পূর্ণতাবোধ : অভ্যন্তরীণভাবে – A= অ্যাকোন, ইস্কু, চায়না, সিমিসি, গ্লোন, মেলিলো, মস্কাস, ফস, রাস, সালফ।
১৮) ব্যথা : ভেতর থেকে বাইরের দিকে সম্প্রসারিত ( Within outward from)- A= অ্যাসাফ, ব্রায়ো, সিমিসি, ল্যাকে, লাইকো, পালস, সালফ।
১৯) ক্ষতের মতো মোচড়ানো ব্যথা ( Sore, bruised) – A= আর্জ- মে, আর্নি, সাইকু, সিমিসি, সিনা, কলো, ড্রসে, হ্যামামে, প্লাটি, পাইরো, রাস, রুটা, সাইলি।
#সংকলনে: ডা.এইচ.এম.আলীমুল হক
ডিএইচএমএস (বিএইচবি), কিউএইচসিবি (বিইউবি)
চেম্বার: আলহক্ব হোমিও ফার্মেসী, মৌচাক, মিজমিজি
সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ।
চিকিৎসা বিষয়ক পরামর্শের জন্য: ১০০টাকা বিকাশ করুন
(বিকাশ পার্সনাল: ০১৯১৬-৫১১ ৩৩৭) তারপর কল করুন
এই নাম্বারে: 01616-511337, 01816-511337