বেলেডোনা (Belladona)

ডেডলি নাইটশেড (সোলানেসি)
#নিজস্বকথাঃ
১। উত্তাপ ও আরক্তিমতা।
২। জ্বালা ও স্পর্শকাতরতা।
৩। আকস্মিকতা ও ভীষণতা।
৪। ব্যথা হঠাৎ আসে হঠাৎ যায়।
#মূলকথাঃ
১। আক্রান্ত অংশে উত্তাপ, লালবর্ণ (আরক্তিম) ও জ¦ালাপোড়া।
২। মস্তকে রক্তাধিক্য, মাথা গরম কিন্তু হাত পা ঠা-া, রোগের তীব্র অবস্থায় মুখম-ল লালবর্ণ ও ফোলা, ক্যারোটিড ধমনীর দপদপানি ও মাথা ব্যথা। তরুন রোগে উল্লেখিত লক্ষণ সমূহ প্রায়ই থাকে।
৩। তরুন রোগ হঠাৎ প্রচন্ডবেগে আক্রমণ করে, বেদনা হঠাৎ আসে আবার হঠাৎ উপশম হয়।
৪। সামান্য ঝাঁকিতে, নড়াচড়ায় ও ঠা-ায় বেদনার বৃদ্ধি।
৫। রোগী ঘুমের মধ্যে চমকে উঠে, অনেক সময় জাগ্রত অবস্থায়ও চমকে উঠে।
৬। শিশু হঠাৎ জেগে কিছু ধরার জন্য হাত বাড়ায়, কাঁপতে থাকে, মনে হয় যেন ভয় পেয়েছে।
#উপযোগিতা:
* পিত্ত, রস ও রক্তপ্রধান ধাতুর লোক, যারা সুস্থ অবস্থায় সজীব ও আমোদপ্রিয় অথচ অসুস্থ হলে ভীষণভাবে অসুস্থ ও মাঝে মাঝে প্রলাপ বকতে থাকে- তাদের ক্ষেত্রে উপযোগী।
* স্ত্রীলোক ও শিশু যাদের পাতলা চুল, নীল চোখ, গায়ের রঙ অত্যন্ত সুন্দর, কোমল চামড়া, অল্পেতেই অনুভূতিপ্রবণ, ¯œায়ুবিক, আক্ষেপ হবার প্রবণতা, টিউবারকুলার ধাতুযুক্ত- তাদের ক্ষেত্রে উপযোগী।
* হৃষ্টপুষ্ট, মোটা এবং ধীশক্তিমান ব্যক্তি। সাধরাণতঃ সুন্দর চেহারা, পাতলা চুল, নীল চক্ষু এবং টিউবারকিউলাস ব্যাক্তি। সকল পীড়ায় ডানদিক আক্রান্ত হয়।
#মন:
* রোগী ভীষণ প্রলাপ বকে; কামড়াতে আসে, থুতু দিতে, মারতে ও জিনিষপত্র ছিড়ে ফেলতে চায়, অট্টহাসি হাসে, দাঁতে দাঁত ঘষতে থাকে ও কাছাকাছি যারা আসে তাদের মারতে চায় (ষ্ট্যামো); আবার ছুটে পালাতে চায় (হেলিবোরাস)।
* কল্পনায় রোগী ভূতপ্রেত দেখে, ভয় পাওয়ানো বিভৎস মুখ, নানারকম পোকা-মাকড় (ষ্ট্যামো), কালো রঙের জীবজন্তু, কালো কুকুর, কালো নেকড়ে প্রভৃতি দেখতে পায়। কাল্পনিক বস্তুতে রোগী ভয় পায়; অলীক বস্তু দেখে।
#অনুভূতিপ্রবণ: রোগীর চলাফেরা ও অনুভূতি খুব দ্রুত, চোখ দ্রুত মিটমিট করে ও নড়াচড়া করে।
#ব্যথাবেদনা:
যে কোন বেদনা হঠাৎ আসে, অনির্দিষ্টকাল থাকে, আবার হঠাৎ চলে যায় (ম্যাগ ফেস)।
ব্যথাবেদনা অল্পসময় থাকে; বেদনায় মুখ ও চোখ দুটি লাল হয়ে যায়; মাথা যেন ভারী ও ক্যারোটিড ধমনী দপদপ করে।
#সর্দিকাশি ও টনসিল প্রদাহ:
একটুতেই সর্দিকাশি লাগে, দমকা বাতাসে অনুভূতিপ্রবণতা বিশেষতঃ যদি মাথা ঢাকা থাকে বা চুল কাটার পরে; ঠা-া বাতাসে ঘুরাফেরা করলে টনসিল প্রদাহ হয় (একোন, হিপার, রাসটক্স)। পায়ে ঠান্ডা লেগে সর্দি (কোনি, কুপ্রাম, সাইলি)।
#জ¦র:
শিশুদের দাঁত উঠার সময় তড়কা সাথে জ¦র (জ¦র না থাকলে- ম্যাগ ফস)। জ¦র হঠাৎ আসে, মাথা গরম কিন্তু পায়ের তলায় ঠা-া। মাথা ও মুখের দিকে শরীরের সমস্ত রক্ত উঠে আসে (এমিল-না, গ্লোনইন, মেলিলো)।
#মাথাযন্ত্রণা:
* মাথা গরম, মাথায় যন্ত্রনা, মুখ আরক্তিম, বন্য হিং¯্র দৃষ্টি, একদৃষ্টে চেয়ে থাকে, চোখের তারা বিস্তৃত; নাড়ী পূর্ণ ও লাফাতে থাকে, নাড়ীতে হাত দিলে ছড়া গুলির মত আঙুলে ধাক্কা দেয়ার মত অনুভূতি।
* রক্তাধিক্য হয়ে মাথাযন্ত্রণা, মুখ আরক্তিম, মস্তিষ্কে ও ক্যারোটিড ধমনীতে দপদপানি যন্ত্রণা (মেলিলো)।
* সামান্য শব্দে, সামান্য ঝাঁকি লাগলে, নড়াচড়ায়, আলোতে, শুয়ে থাকলে ও পরিশ্রমে- মাথাযন্ত্রণা বৃদ্ধি পায়।
* চেপে রাখলে, মাথা কষে বাঁধলে, মাথা ঢেকে রাখলে ও ঋতু¯্রাবের সময়- মাথাযন্ত্রনার উপশম হয়।
* মুখের শ্লৈষ্মিক ঝিল্লী শুকনো, মলত্যাগে দেরী হয়, প্র¯্রাব বন্ধ হয়ে যায়; সাথে ঘুমঘুমভাব কিন্তু ঘুমাতে পারে না (ক্যামো, ওপিয়াম)।
#মাথাঘোরা: সামনে ঝুঁকলে বা অবনত অবস্থা থেকে মাথা তুলতে গেলে (ব্রায়ো); যে কোনভাবে অবস্থান পরিবর্তন করলে মাথাঘোরে।
#পেট:
* পেটে হাত দেয়া যায় না, পেট ফুলে থাকে, সামান্য ঝাঁকি- এমনকি বিছানার ঝাঁকিতেও যন্ত্রণা বাড়ে।
* রোগীর সমান্য ঝাঁকি লাগাতে পারে না- ঝাঁকি লাগার ভয়ে অতি সতর্ক হয়ে পা ফেলে।
* ডান ইলিও-সিকাল প্রদেশে ব্যথা, যা সামান্য ছোঁয়ায়- এমনকি বিছানার ছোঁয়াতেও বেড়ে যায়। পেটে ট্রান্সভার্স কোলন- গদির মত ফুলে যায়।
* পেটে ঠেলামারা ব্যথা, মনে হয় পেটের সমস্ত কিছু বেরিয়ে আসবে। দাঁড়িয়ে বা সোজা হয়ে বসলে উপশম হয়, সকালে এইভাব বেড়ে যায় (লিলি-টি, মিউরেক্স, সিপিয়া)।
#চর্ম:
সর্বত্র সমানভাবে মসৃণ ও চকচকে, স্কারলেট জ¦রের উদ্ভেদের মত মসৃন ও পরিষ্কার লালবর্ণ। চর্ম শুষ্ক, তাতে জ¦ালা- হাত দিলে হাত জ¦ালা করে উঠে।
#বৃদ্ধি:
* ছোঁয়া লাগলে, নড়াচড়ায়, শব্দে, প্রবল বাতাস লেগে, চকচকে জিনিষে চোখ পড়লে (রাইসিন, ষ্ট্যামো)।
* বিকেল ৩টার পর, মাঝরাতের পর, কোন কিছু পান করা সময়।
* মাথা খোলা রাখলে, গরমকালে সূর্যতাপে, বিছানায় শুলে।
#উপশম:- বিশ্রামে, দাঁড়ালে বা সোজা হয়ে বসলে, গরম ঘরে।
# সম্বন্ধ:
* অনুপূরক- ক্যাল্কে-কার্ব, ক্যাল্কেরিয়র তরুন অবস্থার ঔষধ বেলেডোনা. আরোগ্য সম্পূর্ণ করতে বেলেডোনার পরে ক্যাল্কে-কার্ব প্রয়োজন হয়।
* সমগুণ- একেন, ব্রায়ো, সাইকুটা, জেলস, গ্লোন, হায়োস, মেলিলো, ওপি, ষ্ট্র্যামো।
# শক্তি: ৩এক্স থেকে ১এম পর্যন্ত।
সূত্র- এলেন কিনোটস অব মেটিরিয়া মেডিকা
ডা. এইচ এম আলীমুল হক, আলহক্ব হোমিও ফার্মেসী, মুক্তিস্মরণী, চিটাগাংরোড, শিমরাইল মোড়, সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ঢাকা, বাংলাদেশ। ০১৯২০-৮৬৬ ৬১০